সংবাদ সম্মেলনে বৃটিশ হাই কমিশনার সময় অনেক নষ্ট হয়েছে তারপরও সময়মতো ইলেকশন করা সম্ভব

বৃটিশ হাই কমিশনার আনোয়ার চৌধুরী প্রধান দুই রাজনৈতিক দলকে নমনীয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, হাতে সময় বড় কম৷ অনেকটা সময় ইতিমধ্যেই নষ্ট হয়ে গেছে৷ তারপরও আমি মনে করি সময়মতো ইলেকশন করা সম্ভব৷
চলমান সমঝোতার প্রক্রিয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নির্বাচনে অংশ নেবে সে বিষয়ে কোনো সংশয় নেই৷ নির্বাচন নিয়ে সৃষ্ট অচলাবস্থা নিরসনে রাজনৈতিক দলগুলোর ঐকমত্যের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, প্রধান দলগুলোকে অবশ্যই সমঝোতায় পৌছতে হবে৷ তা না হলে নির্বাচন অর্থবহ হবে না৷ মোশাররফ ক্ষমতা নেয়ার পর সমাজের সব খাতে সংস্কার প্রক্রিয়াকে দেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার৷ গোড়ামি ও ধর্মান্ধতা থেকে বের করে এনে প্রযুক্তি নির্ভর একটি আধুনিক মুসলিম রাষ্ট্র গঠনই হচ্ছে পাকিস্তান সরকারের মূল লক্ষ্য৷ এ জন্য সে দেশের সরকার এই পর্যন্ত ১৮টি ধর্মীয় সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে জঙ্গিবাদ উস্কে দেয়ার অভিযোগে৷
গত ২৮ নভেম্বর পাকিস্তান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৃফিংকালে বৃগেডিয়ার জাভেদ ইকবাল চীমা বাংলাদেশি সংবাদ মাধ্যম প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন, মাদ্রাসাগুলো নিঃসন্দেহে মুসলিম বিশ্বের সবচেয়ে বড় এনজিও৷ তবে আফগান যুদ্ধের সূত্র ধরে এর একাংশকে জঙ্গিবাদীরা তাদের রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের কাজে ব্যবহার করছে যা কার্যত মুসলমানদেরই বিপদাপন্ন করে তুলছে৷ ইসলাম সম্পর্কে বিশ্ববাসীর মনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে৷ প্রকারান্তরে এটা পাকিস্তানের সামগ্রিক নিরাপত্তাকেও হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে৷ এ কারণেই সে দেশের সরকার ১৩ হাজার ৫০০ মাদ্রাসার মধ্যে ইতিমধ্যেই ১২ হাজার ৫০০ মাদ্রাসাকে নিবন্ধীকরণের আওতায় এনেছে৷ অনাপত্তিপত্র ছাড়া যেখানে-সেখানে যাকে-তাকে মাদ্রাসা স্থাপনের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না৷
ধর্মীয় শিক্ষালয়গুলোর পাঠ্যসূচিতে আনা হচ্ছে ব্যাপক পরিবর্তন৷ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে লিয়াজো করে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে মাদ্রাসা কারিকুলামে ইতিহাস, ইংলিশ, অঙ্ক, কম্পিউটার ও বিজ্ঞানভিত্তিক বিষয়গুলোকে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে৷ এছাড়া মাদ্রাসার অর্থ সূত্রও খতিয়ে দেখছে নিরাপত্তা সংস্থগুলো৷ বিদেশি ছাত্রদের পাকিস্তানি মাদ্রাসায় পড়াশোনা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে৷ এ পর্যন্ত ৪৮৭ জন বিদেশি ছাত্রকে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে৷ তবে এখন যারা শেষবর্ষে পড়াশোনা করছে তাদের লেখাপড়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত সে দেশে থাকার অনুমতি দিয়েছে পাকিস্তান সরকার৷
বৃগেডিয়ার জাভেদ চীমা জানান, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সব রকম ধর্মীয় বা জাতিগত বিদ্বেষমূলক বইপত্র, লিফলেট প্রকাশ ও বিতরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে৷ শিয়া-সুন্নি পরস্পর বিরোধী কোনো কথাবার্তা কেউ বললেই তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে৷ এমনকি প্রতিটি মসজিদের ইমাম বা খতিবকে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়া থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে৷ এর মধ্যে বেশ ক’জন গ্রেফতারও হয়েছেন ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানো ও জঙ্গিবাদকে সমর্থন করে মসজিদে কথা বলার কারণে৷ তবে এ জাতীয় কঠোর আইন প্রবর্তন করলেও পাকিস্তানি সরকার মুসলিম ঐতিহ্য পরিপন্থী কোনো কিছু চাপিয়ে দিতে রাজি নয়৷
বৃগেডিয়ার চীমার মতে, মহান ধর্ম ইসলাম যা শান্তি ও জ্ঞান চর্চার ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দেয় তাকে তারা কোনোভাবেই হেয় করতে চান না৷ তিনি সুস্পষ্টভাবেই বলেছেন, পশ্চিমি জগত মুসলিম দেশগুলোর ওপর যখন-তখন অর্থনৈতিক-বাণিজ্যিক অবরোধ আরোপ করে, সন্ত্রাসের জন্য ইসলামকে দায়ী করে৷ কিন্তু তারা কখনোই সন্ত্রাসের মূল কারণ কি সেদিকে মোটেও নজর দেয় না৷ প্যালেস্টাইন, কাশ্মিরি নিপীড়িত মুসলমানদের অধিকার বাস্তবায়নে এগিয়ে আসে না৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=21974&issue=159&nav_id=7

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: