একদিনের হরতালে ক্ষতি ৫০০ কোটি টাকা, অবরোধে আরো বেশি

হরতাল অবরোধের মতো রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ইমেজ নষ্ট হচ্ছে এবং অর্থনীতি বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে৷ একদিনের হরতালে গড়ে আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫০০ কোটি টাকা৷ অবরোধে এ ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশি৷ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উদ্যোক্তাদের সংগঠন ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্টৃজের (ডিসিসিআই) নবনির্বাচিত পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় (মিট দি প্রেস) অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন৷ অনুষ্ঠানে ডিসিসিআইয়ের নবনির্বাচিত সভাপতি হোসেন খালেদ সভাপতিত্ব করেন৷ পর্ষদের নবনির্বাচিত সব পরিচালকও এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন৷ হরতাল অবরোধের মতো কর্মসূচির কারণে দেশের অর্থনীতিতে ক্ষয়ক্ষতির চিত্র তুলে ধরে ডিসিসিআইয়ের নবনির্বাচিত সভাপতি বলেন, প্রতিদিনের হরতাল অবরোধে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ক্ষতি হচ্ছে জিডিপির ০.১২ শতাংশ৷ প্রতিদিনের হরতালে ক্ষতি হচ্ছে ৫০০ কোটি টাকার মতো৷ অবরোধে এ ক্ষতির পরিমাণ আরো বেশি৷ এ জন্য পোশাক শিল্প খাতেই প্রতিদিন ক্ষতি হচ্ছে ৩৬০ কোটি টাকা৷
সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্টের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর শুধু একদিন বন্ধ থাকলে সরকারের রাজস্ব বাবদ ক্ষতি হয় প্রায় তিন কোটি টাকা৷ বন্দরে কন্টেইনার খালাসের অনুমোদনের তুলনায় খালাস হচ্ছে খুবই কম৷ বন্দরে রেকর্ড পরিমাণে কন্টেইনার জট সৃষ্টি হওয়ায় আমদানি-রফতানি বাণিজ্য অচল হয়ে পড়ছে৷
হোসেন খালেদ বলেন, হরতাল অবরোধের কারণে সাধারণ জনগণের কষ্ট অফ লিভিং বা জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ শিশুদের পড়ালেখা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ এ ধরনের কর্মসূচির কারণে শান্তির জন্য নোবেল বিজয়ী বাংলাদেশের ইমেজ বহির্বিশ্বে নষ্ট হচ্ছে৷ পাশাপাশি আমদানিকারকদের এলসি করার ক্ষেত্রে বৈদেশিক ব্যাংকের গ্রহণযোগ্যতা অর্জনের জন্য অতিরিক্ত অর্থও খরচ করতে হচ্ছে৷
সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনের জন্য তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে লিখিত বক্তব্যে হোসেন খালেদ বলেন, বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন যেমন আন্তর্জাতিক মহলের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে হবে তেমনি বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণের কাছে যথার্থ হতে হবে৷ সব রাজনৈতিক দল যদি সমঝোতায় পৌছতে পারে তাহলে ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় পরিবর্তন আনা যেতে পারে৷ সংবিধানও সুবিধাজনক সময়ে সংশোধন করা যেতে পারে৷ এক প্রশ্নের জবাবে হোসেন খালেদ বলেন, একদলীয় নির্বাচন কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়৷ একমাত্র বহু দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্য হতে পারে৷
ব্যবসায়ীদের সর্ববৃহত্ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে জরুরি অবস্থা আরোপের দাবির বিষয়ে দ্বিমত আরোপ করে হোসেন খালেদ বলেন, জরুরি অবস্থা আরোপের মতো কোনো পরিস্থিতি এখনো তৈরি হয়নি৷ আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার সমাধান করতে হবে৷
ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের মধ্যে পরিচালিত একটি সমীক্ষার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, অবরোধ কর্মসূচির কারণে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উদ্যোক্তারা গড়ে ৪০ লাখ টাকা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ এ ধরনের ক্ষতি বহন করার মতো সামর্থ্য নেই উদ্যোক্তাদের৷
অনুষ্ঠানে ডিসিসিআইয়ের নবনির্বাচিত পরিচালক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন, সালাউদ্দিন আবদুল্লাহ, আবদুল আজিজ, মোহাম্মদ ফায়েজ, শাহজাহান খান, মনজুরুর রহমান রাসকিন এবং হায়দার আহমেদ খান উপস্থিত ছিলেন৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=25581&issue=189&nav_id=7

একদিনের হরতালে ক্ষতি ৫০০ কোটি টাকা, অবরোধে আরো বেশি-এ একটি মন্তব্য হয়েছে

  1. […] সমর্থন করার কারণ খুঁজে পাই না। একদিনের হরতালে দেশে ক্ষতি হয় ৫০০ কোটি …। হরতালকে এতটাই ঘৃণ্য মনে হয় যে হরতাল […]

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: