প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বিজিএমইএ নেতাদের সাক্ষাত্ যে কোনো মূল্যে চট্টগ্রাম বন্দর সচল রাখার দাবি

বাংলাদেশ গার্মেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) নেতারা যে কোনো মূল্যে চট্টগ্রাম বন্দর সচল রাখার দাবি জানিয়েছেন৷ নেতারা গতকাল বঙ্গভবনে প্রেসিডেন্ট ও কেয়ারটেকার সরকারের চিফ অ্যাডভাইজর প্রফেসর ড. ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করে এ দাবি জানান৷ বিজিএমইএ নেতারা প্রেসিডেন্Uরে কাছে তাদের অন্য দাবি-দাওয়াও তুলে ধরেন এবং তা বাস্তবায়নের অনুরোধ জানান৷
বিজিএমইএ সভাপতি এস এম ফজলুল হক প্রেসিডেন্টকে জানান, তিন মাস ধরে এ শিল্পকে প্রতিনিয়ত শ্রমিক অসন্তোষ, ভাংচুর, লুটপাট, অগ্নিকাণ্ডসহ নানা ধরনের ষড়যন্ত্র ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ডাকা কর্মসূচি মোকাবেলা করতে হচ্ছে৷ ফলে এ শিল্প ভয়াবহ ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে৷ এ শিল্পে ক্রেতাদের অর্ডারের পতন ঘটছে৷ আশানুরূপ নতুন অর্ডার পাওয়া যাচ্ছে না৷ এমনকি অর্ডার বাতিলের ঘটনাও ঘটছে৷ এতে পোশাক রফতানিতে নিম্নমুখী প্রবণতা দেখা দিয়েছে৷ এ অবস্থা মোকাবেলায় তিনি প্রেসিডেন্Uরে কাছে এ শিল্পকে রক্ষার জন্য কিছু সুপারিশ তুলে ধরেন৷
বিজিএমইএ সভাপতি এস এম ফজলুল হক তার সুপারিশে মেশিনারির বিপরীতে তফসিল ন্যুনতম ছয় মাসের সুদমুক্তভাবে পিছিয়ে দেয়ার কথা বলেন৷ তিনি বলেন, অনেক কারখানা ফোর্সড লোনের শিকার হয়ে রুগ্ন হয়ে গেছে৷ অনেক কারখানা শ্রমিকদের আগামী মাসে বেতন-ভাতা দিতে পারবে না৷ এ বিষয়টি বিবেচনা করে শ্রমিকদের তিন মাসের বেতন-ভাতার সমপরিমাণ অর্থ কারখানাগুলোকে আগামী এক বছরের শেডিউলে সহজ শর্তে সুদমুক্ত ঋণ হিসেবে দেয়া হোক৷
ব্যাক-টু-ব্যাক আমদানি ঋণপত্রের পরিশোধের সময়সীমা সুদবিহীনভাবে ন্যুনতম ৬০ দিন বৃদ্ধি করার ও কারখানাগুলো যে পরিমাণ ক্যাশ লিমিট পায়, তা কারখানার প্রয়োজনমতো বাড়িয়ে দেয়ার জন্য ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ প্রদানের জন্যও তিনি প্রেসিডেন্টকে অনুরোধ করেন৷
সুপারিশে বর্তমান বকেয়া গ্যাস ও বিদ্যুত্ বিল এক বছরের দীর্ঘ মেয়াদি কিস্তিতে প্রদান এবং রফতানির স্বার্থে কোনো অবস্থাতেই যেন গ্যাস ও বিদ্যুত্ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা না হয় সে জন্য নির্দেশ প্রদান এবং পোশাক কারখানাগুলোয় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়ার আহ্বান জানান৷
প্রেসিডেন্ট বিজিএমইএ প্রতিনিধি দলের বক্তব্য ও সুপারিশ শোনেন এবং সুপারিশ অনুযায়ী পোশাক কারখানাগুলোর বর্তমান বকেয়া গ্যাস ও বিদ্যুত্ বিল দীর্ঘ মেয়াদি কিস্তিতে প্রদানের সুযোগ এবং কোনো অবস্থাতেই যেন এগুলোর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা না হয়, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উপদেষ্টাকে নির্দেশ প্রদানের আশ্বাস দেন৷ শিল্পের স্বার্থে দেশে সুষ্ঠু আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উপদেষ্টাকে নির্দেশ প্রদানেরও আশ্বাস দেন তিনি৷ প্রেসিডেন্ট বলেন, রফতানি বাণিজ্যের স্বার্থে চট্টগ্রাম বন্দর যাতে সবসময় সচল থাকে, সে ব্যাপারে তিনি নির্দেশ প্রদান করবেন৷
প্রেসিডেন্ট বলেন, পোশাক শিল্প এ দেশের অর্থনীতির হৃত্পিণ্ড৷ তিনি মনে-প্রাণে উপলব্ধি করেন, অর্থনীতির প্রয়োজনে এ শিল্পকে যে কোনোভাবেই হোক টিকিয়ে রাখতে এবং এর বাজার সম্প্রসারণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে৷ বিশেষ করে নারী সমাজের কর্মসংস্থানের যে ব্যবস্থা তা যেন ব্যাহত না হয় এবং কর্মরত নারী শ্রমিকরা যাতে প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধা পায়, সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিকভাবে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি৷
বিজিএমইএ প্রতিনিধি দলে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর প্রথম সহসভাপতি মঈনউদ্দিন আহমেদ, দ্বিতীয় সহসভাপতি মোঃ লুত্ফর রহমান (মতিন), সহসভাপতি (অর্থ) মোঃ সিরাজুল ইসলাম (লিটন) ও পরিচালক মেজবাহ উদ্দিন আলী৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=25574&issue=189&nav_id=7

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: