অ্যাডভাইজররা জানেন না কবে হবে ভোট সংবিধান লঙ্ঘিত হয়েছে বলেই ইমার্জেন্সি : ব্যারিস্টার মইনুল

নবম জাতীয় সংসদের নির্বাচন কবে হবে এবং বর্তমান সরকার কতোদিন দেশ চালাবে সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনো ধারণা নেই অ্যাডভাইজরদের৷ নিয়োগ দেয়ার সময় সরকারের মেয়াদ সম্পর্কে নবনিযুক্ত পাচ অ্যাডভাইজরকে কিছুই জানানো হয়নি৷ এ প্রসঙ্গে আইন উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন বলেন, শাসনতন্ত্রে বলা নেই এ তত্ত্বাবধায়ক সরকার কতোদিন ক্ষমতায় থাকবে৷ তবে নির্বাচন কমিশন সক্রিয় থাকলে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সংক্রান্ত সংস্কার আগামী দুই মাসের মধ্যেই শেষ করা যাবে৷
অন্যদিকে সচিবালয়ে নিজ দফতরে নবনিযুক্ত আরেক অ্যাডভাইজর এম এ মতিনও সাংবাদিকদের বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদ কতোদিন হবে সে সম্পর্কে আমাদের কিছু বলা হয়নি৷ তবে অবাধ, সুষ্ঠু এবং গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য যতো দ্রুত সম্ভব আমরা ব্যবস্থা নেবো৷
গতকাল সোমবার চিফ জাস্টিসের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক শেষে সচিবালয়ের নিজের মন্ত্রণালয়ে ১৫ মিনিটের এক প্রেস কনফারেন্সে নবনিযুক্ত আইন উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, চলমান রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় মধ্যে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা পদে ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ দায়িত্ব নেয়া ও ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হওয়ায় সংবিধানের কয়েকটি ধারা ভঙ্গ হয়েছে৷ বিষয়টিকে কভার করার জন্যই ইমার্জেন্সি ঘোষণা করা হয়েছে৷ এ অবস্থায় নির্বাচন পেছানোর জন্য আর সুপৃম কোর্টের মতামত চাওয়ার দরকার নেই৷
ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন বলেন, নির্বাচন শুধু সুষ্ঠু হলেই চলবে না৷ একে কালো টাকা মুক্ত করতে হবে৷ এ বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য আমরা নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে নির্বাচনে প্রার্থীর ব্যয় নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি৷ জনগণ কালো টাকার নির্বাচন চায় না৷ কালো টাকার নির্বাচন হলে জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটবে না৷
ভোটার লিস্ট সংক্রান্ত জটিলতার জন্য নির্বাচন কমিশনকে দায়ী করে তিনি বলেন, ভোটার লিস্ট সংক্রান্ত সমস্যা নির্বাচন কমিশনই তৈরি করেছে৷ এছাড়া উচ্চ আদালতের নির্দেশনার জন্যও কিছু সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে৷ বিষয়গুলো নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে৷
আইন উপদেষ্টা বলেন, জরুরি অবস্থায় দেশের মানুষের মৌলিক অধিকার যাতে বেশি সময় ধরে খর্ব না হয় এ জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে৷
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জুডিশিয়ারি সেপারেশনে ভূমিকা রাখতে পারলে নিজেকে ধন্য মনে করতাম৷
অন্যদিকে যোগাযোগ উপদেষ্টা এম এ মতিন বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বার্থে ভোটার তালিকা, ভোটার পরিচয়পত্র, স্বচ্ছ ব্যালট বক্স তৈরি, নির্বাচন কমিশন সংস্কার এবং প্রশাসন দলীয়মুক্ত করা হবে৷ তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবার জন্য ভোটার পরিচয়পত্র তৈরি করতে দুই বছর লাগতে পারে৷
নির্বাচন সংক্রান্ত সব সিদ্ধান্ত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে নেয়া হবে বলে সাংবাদিকদের জানান মতিন৷ সাবেক এ সেনা কর্মকর্তা বলেন, তারা যদি রাজি হয় তবে ২০০১ সালের ভোটার তালিকা সংশোধন করে নির্বাচন সম্পন্ন করা হবে৷ তিনি বলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে বাদ পড়া ভোটারদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে৷
জরুরি অবস্থার মেয়াদকাল দীর্ঘায়িত করা ঠিক হবে না বলে মনে করেন উপদেষ্টা এম এ মতিন৷ তিনি বলেন, আমাদের ওপর যদি জনগণ এবং রাজনৈতিক দলগুলো আস্থা রাখে তবে খুব বেশিদিন জরুরি অবস্থা রাখার দরকার নেই৷ জরুরি অবস্থার মধ্যেও জনগণের মৌলিক অধিকার যতোদূর সম্ভব অক্ষুণ্ন রাখা হবে বলে জানান তিনি৷
যোগাযোগ, নৌ পরিবহন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপদেষ্টা এম এ মতিন বলেন, মঙ্গলবার চার মন্ত্রণালয়ের সচিবদের সঙ্গে আমি বৈঠক করবো৷ দুর্নীতির বিষয়ে আমি কঠোরভাবে হস্তক্ষেপ করবো এবং এ ক্ষেত্রে কারো অযৌক্তিক দাবি শুনবো না, তেমনি আমি নিজেও কোনো অযৌক্তিক অনুরোধ কাউকে করবো না৷
বাকি পাচ অ্যাডভাইজর কবে নিয়োগ করা হবে জানতে চাইলে এম এ মতিন বলেন, বিষয়টি আমি প্রধান উপদেষ্টাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম৷ তিনি বলেছেন, যতো দ্রুত সম্ভব বাকি পাচ অ্যাডভাইজরকে নিয়োগ করা হবে৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=26130&issue=194&nav_id=1

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: