সন্ত্রাসী গডফাদার গ্রেফতার অভিযান নতুন তালিকায়

সন্ত্রাসী ও গডফাদারদের নতুন তালিকা করছে সরকার এবং নতুন তালিকার ভিত্তিতেই যৌথ বাহিনী সন্ত্রাসী ও গড-ফাদারদের গ্রেফতারে অভিযান চালাবে৷ তবে চলমান যৌথ অভিযানে নিরীহ মানুষকে অযথা হয়রানি না করতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে সরকার বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে৷ গতকাল রবিবার আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ নির্দেশ দেয়া হয়৷
আইন ও তথ্য উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কমিটির প্রথম বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দুই সদস্য উপদেষ্টা এম এ মতিন ও আইয়ুব কাদরী৷ মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), ৠাব, এনএসআই, বিডিআর ও আনসারের মহাপরিচালকসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও বৈঠকে যোগ দেন৷
উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে জানানো হয়, আইন প্রয়োগকারী বিভিন্ন সংস্থার কাছে থাকা তালিকার ভিত্তিতে নতুন একটি তালিকা করে অভিযান পরিচালনার জন্য যৌথ বাহিনীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ কোনো সন্ত্রাসীর নাম একাধিক তালিকায় থাকলে সেটি চিহ্নিত করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাকে আটকের নির্দেশও দিয়েছে কমিটি৷ বৈঠকে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও গডফাদাররা যাতে জামিন না পায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে৷ এ ক্ষেত্রে করণীয় সম্পর্কে কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও সম্ভাব্য উপায়গুলো খুজে বের করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিটি৷
উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে এবং এটি ধরে রাখতে হবে৷ সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানের সময় নিরীহ কেউ যেন হয়রানির শিকার না হয় সে দিকে নজর রাখার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ অপ্রয়োজনীয় হয়রানি না করে বড় সন্ত্রাসীদের ধরতে হবে৷ রাজধানীসহ দেশের কোথাও টেলিভিশন লাইসেন্স তল্লাশির নির্দেশ দেয়া হয়নি৷ এ ধরনের কোনো ঘটনা ধরা পড়লে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে৷
সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে টেলিভিশন লাইসন্সে বিষয়ে বিস্তর আলোচনা হয়েছে৷ লাইসেন্স তল্লাশির জন্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে কোনো নির্দেশ দেয়া হয়নি বলে সংশ্লিষ্টরা জানান৷ একটি স্বার্থান্বেষী মহল নিজেদের স্বার্থে এসব করছে৷ এ ধরনের কোনো ঘটনা ধরা পড়লে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে৷ বৈঠকে টেলিভিশন কেনার সময় আজীবন লাইসেন্স প্রদানের বিষয় এবং যারা এখনো লাইসেন্স করেননি তাদের ক্ষমা করে দেয়ার বিষয়েও আলোচনা হয়৷ তবে এ সম্পর্কে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি৷
বগুড়ায় চুরির আসামিকে থানায় ঝুলিয়ে পেটানোর ঘটনা, সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যাকাণ্ডের তদন্ত ও শনিবার রাতে ৠাবের গাড়িতে বোমা হামলার বিষয়ে আলোচনা করা হয়৷
এছাড়া ঢাকায় ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, হকার উচ্ছেদ ও তাদের পুনর্বাসনের উপায় নিয়েও আলোচনা হয়েছে৷ বৈঠকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ফলে গৃহহীনদের পুনর্বাসন, হকারদের জন্য একটি হলিডে মার্কেট করার সম্ভাবনা খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত হয়৷
বৈঠকে জানানো হয়, সীমান্তে সম্প্রতি বিএসএফ ২৫ হাজার সদস্য বাড়িয়েছে, অত্যাধুনিক রেডার ও অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পাহারা জোরদার করেছে৷ সীমান্ত এলাকায় বাংলাদেশিদের প্রাণহানির ঘটনা বাড়ছে৷ এসব ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়৷ এছাড়া ডিজেল ও সার পাচার রোধে বিডিআরকে আরো সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়৷
সূত্র আরো জানায়, বৈঠকে বলা হয়েছে, যতো দ্রুত সম্ভব নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করা হবে৷ এরপর রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করবে নির্বাচন কমিশন৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=27621&issue=207&nav_id=1

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: