চট্টগ্রাম মুন্সীগঞ্জে শতকোটি টাকার সার সিমেন্ট আটক

চট্টগ্রাম ও মুন্সীগঞ্জে যৌথ বাহিনী গতকাল শুত্রক্রবার পৃথক অভিযান চালিয়ে একশ’ কোটি টাকারও বেশি মহৃল্যের সার, সিমেন্ট ও পোলট্রি ফিড আটক করেছে। এর মধ্যে চট্টগ্রামে স্ট্মরণকালের সর্ববৃহৎ অভিযানে শত কোটি টাকা মহৃল্যের সাড়ে ৪ লাখ বস্টস্না সার এবং ৮ হাজার বস্টস্না পোলট্রি ফিড আটক করেছে সেনাবাহিনী। ৮টি প্রতিষ্ঠানের নামে আমদানি করা এসব সার ও পোলট্রি ফিড গতকাল নগরীর ৯টি গুদাম থেকে উদব্দার করা হয়। আটক করা হয় ২ জনকে। বিকেল থেকে সল্পব্দ্যা পর্যনস্ন চলে এই অভিযান। এছাড়া মুন্সীগঞ্জে আটক করা হয় ২ লাখ বস্টস্না ভেজাল সিমেন্ট। আমাদের বু্যরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :
চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে উদব্দার করা সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার বস্টস্না টিএসপি, ৭৫ হাজার বস্টস্না এমওপি, ৭৫ হাজার বস্টস্না এসএমপি, ১ লাখ ৫০ হাজার বস্টস্না তিউনিসিয়ার টিএসপি, ৭০ হাজার বস্টস্না সোডা এবং ৮ হাজার বস্টস্না পোলট্রি ফিড। নগরীর মাঝিরঘাটে বাংলাদেশ জুট কর্পোরেশনের পরিত্যক্ত ৯টি গুদাম থেকে বিপুল পরিমাণ এসব সার ও পোলট্রি ফিড উদব্দার করা হয়। আটক এসব পণ্যের দাম প্রায় ১০০ কোটি টাকা বলে সেনাবাহিনী জানায়।
জানা গেছে, ৮টি ভিল্পম্ন প্রতিষ্ঠানের নামে এসব সার আমদানি করা হয়েছিল। অবৈধভাবে অতিরিক্ত মুনাফা আদায়ের উদ্দেশ্যে বর্তমানে ইরি ও বোরো চাষের পিক সিজনেও এসব সার মজুদ করে রাখা হয়েছিল। এভাবে অবৈধভাবে সার মজুদ করে রাখায় গতকাল ৯টি গুদাম সিল করে দেয় সেনাবাহিনী।
সহৃত্র জানায়, সার মজুদের অবৈধ এই প্রত্রিক্রয়ায় জড়িত রয়েছে চট্টগ্রামের ৮টি প্রতিষ্ঠান। সেগুলো হচ্ছে কন্টিনেন্টাল এজেন্সি, এন রহমান, হাফিজ হোল্ডিং লিমিটেড, সিকম বাংলাদেশ লিমিটেড, মেসার্স খাজা ট্রেডার্স, বিকন ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস লিমিটেড, দি ইসদ্ব অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্স ও জিলানী এন্টারপ্রাইজ। এ ঘটনায় জিলানী এন্টারপ্রাইজের নহৃর হোসেন ও অসীম দাশ নামে ২ কর্মচারীকে গ্রেফতার করেছে সেনাবাহিনী।
মুন্সীগঞ্জ : জেলার গজারিয়া উপজেলার তেতৈতলা মেঘনাঘাট এলাকার আনোয়ারা সিমেন্ট ফ্যাক্টরি থেকে প্রায় ৬ কোটি টাকা মহৃল্যমানের ২ লাখ ব্যাগ ভেজাল সিমেন্ট আটক করেছেন যৌথ বাহিনীর সদস্যরা। গতকাল বিকেলে ওই অভিযানের সময় কারখানার ৩ প্রকৌশলীসহ ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়।
সেনা সহৃত্র জানায়, গোপন খবরের ভিত্তিতে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা গতকাল বিকেল ৫টায় আনোয়ারা সিমেন্ট কারখানায় অভিযান চালান। এ সময় কারখানায় সিমেন্টের মধ্যে এক ধরনের সাদা পাথরের গুঁড়া মিশিয়ে ভেজাল করার প্রত্রিক্রয়া চলছিল। সেনা ও পুলিশ সদস্যরা কারখানার গুদামে তল্ক্নাশি চালিয়ে আনুমানিক ২ লাখ ব্যাগ ভেজাল সিমেন্টের মজুদ আবিষ্ফ্কার করেন।
রাত সাড়ে ৮টায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যনস্ন সেনা ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা চারদিক থেকে কারখানাটি ঘিরে রেখেছিলেন। আটক করা বিপুল পরিমাণ সিমেন্ট আপাতত ফ্যাক্টরির ভেতরেই রাখা হয়েছে। এই ভেজাল সিমেন্ট কী করা হবে এবং কারখানার বিরুদব্দে কী ব্যবস্ট্থা নেওয়া হবে, সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি।
যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে
সেনাবাহিনীর তৎপরতায় এ সময় ধরা পড়েন প্রশাসনিক কর্মকর্তা শামসুল হক, সহকারী প্রকৌশলী বাবু বার্মা, মোঃ এহসানুল, মেকানিক্যাল প্রকৌশলী খন্দকার নিজাম, মেকানিক্যাল সহকারী প্রকৌশলী আবুল বাশার, সাজ্জাদুল কবীর, প্রবীর কুমার নাথ, নাজমুল সাজ্জাদ, সহকারী কেমিসদ্ব মোঃ আবেদ আলী, অরূপ বিশ্বাস, গোডাউন অফিসার রুহুল আমিন এবং সহকারী অফিসার বিপ্ট্নব দত্ত।
সূত্রঃ http://www.shamokal.com/details.php?nid=50496

চট্টগ্রাম মুন্সীগঞ্জে শতকোটি টাকার সার সিমেন্ট আটক-এ একটি মন্তব্য হয়েছে

  1. Pritam Pratihar বলেছেন:

    Very important news.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: