শহরে বিদ্যুতের দাম পাচ ভাগ বাড়লো

শহরাঞ্চলের বিদ্যুতের দাম পাচ শতাংশ বাড়িয়েছে সরকার৷ গতকাল সোমবার থেকেই এ আদেশ কার্যকর হবে৷ ১০০ ইউনিটের বেশি যারা বিদ্যুত্ ব্যবহার করবে তাদের ওপর এ নিয়ম প্রযোজ্য হবে৷
এর ফলে গ্রাম ও শহরের গ্রাহকরা এখন থেকে বিদ্যুতের জন্য সমান মূল্য দেবে৷ গ্রামের গ্রাহকরা এতোদিন ধরে বিদ্যুতের বেশি মূল্য দিয়ে আসছিল৷ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা পরিষদ কমিটির বৈঠকে গতকাল সোমবার এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়৷
উলেখ্য, এর আগে ২০০৩ সালের সেপ্টেম্বরে বিদ্যুতের দাম পাচ শতাংশ হারে বাড়ানো হয়৷ প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ছিল আড়াই টাকা৷ আগে ১০০ থেকে ৪০০ ইউনিটের প্রতি ইউনিটের দাম ছিল ৩ টাকা৷ বর্তমানে তা হয়েছে ৩ টাকা ১৫ পয়সা৷ আগে ৪০০ ইউনিট থেকে যতো ব্যবহার করা যায় প্রতি ইউনিটের দাম ছিল ৫ টাকা, বর্তমানে প্রতি ইউনিটের দাম হয়েছে ৫ টাকা ২৫ পয়সা৷
বৈঠক শেষে কমিটির চেয়ারম্যান অর্থ উপদেষ্টা ড. এ বি মির্জা আজিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত পুরনো৷ গত সরকারের সময়ই এ সিদ্ধান্ত নিয়ে তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়৷ কিন্তু পরে বিষয়টি স্থগিত হয়ে যায়৷ সেই স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা৷
তিনি আরো বলেন, গ্রামের লোকজন বিদ্যুতের চার্জ বেশি দেবে আর শহরের লোকজন কম দেবে এটা তো হতে পারে না৷
দাতাদের, বিশেষ করে এডিবির শর্ত পূরণের জন্য শহরাঞ্চলের বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে কি না এ কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, সরকার যখন এমনিতেই গ্যাস বা বিদ্যুতের দাম বাড়ায় তখন অনেকেই মনে করে দাতাদের শর্ত মানার জন্য বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে৷ আসলে উত্পাদনের খরচ পূরণের জন্য বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে৷
বিদ্যুতের চুরি বা সিস্টেম লস না কমিয়ে বা বন্ধ না করে মূল্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে জ্বালানি ও বিদ্যুত্ উপদেষ্টা তপন চৌধুরী বলেন, গ্যাস-বিদ্যুতের চুরি বা সিস্টেম লস কিংবা অপচয় যা-ই বলুন না কেন তা বন্ধের জন্য কাজ করছি৷ আমাদের সময়েও হয়তো ১০০ ভাগ বন্ধ করা সম্ভব হবে না৷ তারপরও যেটুকু হবে সেটা কাজে আসবে৷ বিরাট অঙ্কের গ্যাস ও বিদ্যুত্ বিল যারা দেয়নি তাদের শিগগিরই ধরা হবে৷ এছাড়া যাতে গ্রাহকরা তাড়াতাড়ি জ্বালানি বিল পরিশোধ করে সে জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হবে৷
উলেখ্য, এখন বিদ্যুত্ খাতে গড়ে ২৪ শতাংশ সিস্টেম লস হচ্ছে৷
তিনি আরো বলেন, বিদ্যুত্ বিভাগের যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী সিস্টেম লস বা অপচয়ের সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে৷ এর পর থেকে গ্রাহকসেবার মান কমলে বা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবারো এসব কাজে জড়িয়ে পড়ার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে৷ তিনি জানান, শতকরা ৮০ ভাগ গ্রাহক ১০০ ইউনিটের কম বিদ্যুত্ ব্যবহার করে৷ তাদের ওপর মূল্য বৃদ্ধির কোনো প্রভাব পড়বে না বলেও উলেখ করেন তিনি৷
তিনি আরো বলেন, মূলত বিদ্যুতের উত্পাদন ব্যয় ও ভর্তুকি কমিয়ে আনার জন্য বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে৷ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আজ থেকেই শহরাঞ্চলের বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে৷ তপন চৌধুরী বলেছেন, দেশের এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের মতামত নিয়েই শহরাঞ্চলের বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে৷
সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=28454&issue=214&nav_id=1

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: