বিএনপির অনেক নেতার আত্মসমর্পণের প্রস্তুতি

বিএনপিতে গ্রেফতার আতঙ্ক অনেকখানি কেটে গেছে। যাদেরকে খোঁজা হচ্ছে এমন নেতারা স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণের জন্যও প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এদিকে দলের আইন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বেগম খালেদা জিয়া আশু করণীয় নিয়েও জরুরি আলোচনা করেছেন। অবশ্য কারা কারা আটকের তালিকায় আছেন তা নিয়ে নেতাদের মধ্যে বিভ্রান্তি রয়েছে। যারা নিজেরা নিশ্চিত হতে পারছেন যে, তারা আটক হতে পারেন, তারা আত্মগোপনেই থাকছেন। গতকাল কেউ কেউ কিছু পত্রিকায় প্রকাশিত তালিকা নিয়ে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন। বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে রাতে হাওয়া ভবনে সাড়্গাৎ করে বেশ কয়েকজন নেতা পত্রিকায় নানান ধরনের প্রতিবেদন নিয়ে ড়্গোভ প্রকাশ করেন। একজন নেতা তিনটি পত্রিকার নামোলেস্নখ করে বলেন যে, তারা ‘মনগড়া’ সংবাদ রচনার প্রতিযোগিতায় লিপ্ত। বেগম জিয়া এ প্রসঙ্গে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক নেতা জানান।

বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে গতকাল বৈঠক করেছেন দলের মহাসচিব আবদুল মান্নান ভুঁইয়া, এমকে আনোয়ার, খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, আব্দুলস্নাহ আল নোমান, মেজর জেনারেল (অবঃ) জেডএ খান, নজরম্নল ইসলাম খান ছাড়াও ১০-১২ জন সাবেক সংসদ সদস্য।

এদিকে দলের মুখ্য সঞ্চালক তারেক রহমানকে নিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় বিভ্রানিত্মর সংবাদের প্রতিবাদ করে গতকালও বিএনপির অঙ্গ সংগঠনগুলো বিবৃতি দিয়েছে। তারা পৃথক বিবৃতিতে বলেন, দলকে দুর্বল করার জন্য দলের শক্তি তারেক রহমানকে কোন কোন মহল টার্গেট করে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

এদিকে বিএনপি’র মহাসচিব আবদুল মান্নান ভুঁইয়া মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তরিকুল ইসলাম, সালাউদ্দিন আহমেদ, মোসাদ্দেক আলী ফালু এবং আলী আজগর লবীসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনসমূহের নেতা-কর্মীদের আটক করায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিবৃতিতে আবদুল মান্নান ভুঁইয়া বলেন, গ্রেফতারকৃত বিএনপি নেতৃবৃন্দকে কোন সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া আটকাদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর ফলে জনমনে ভীতি ও বিভ্রানিত্ম সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি বলেন, কোন মহলের রাজনৈতিক বিদ্বেষপ্রসূত প্রচারণা কিংবা দাবিতে প্রভাবিত হয়ে নেতা-কর্মীকে অযথা হয়রানি করা অনৈতিক।

তরিকুলের পরিবারের সাড়্গাৎ

বেগম খালেদা জিয়া তরিকুল ইসলামের পরিবারের সদস্যদেরকে মঙ্গলবার বনানীর হাওয়া ভবনে ডেকে তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। এ সময় সাবেক প্রধানমন্ত্রী তরিকুল ইসলামের পরিবারের সদস্যদের সানত্ম্বনা এবং প্রয়োজনীয় আইনী সহায়তা দেয়ার আশ্বাস দেন। তরিকুল ইসলামের ছেলে শানত্মনু ইসলাম সুমিত তার বাবার সার্বিক অবস্থার কথা দলের চেয়ারপারসনকে জানান। এ সময় তিনি দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, চৌধুরী তানভির আহমেদ সিদ্দিকী, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, এম শামসুল ইসলামসহ সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-02-07

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: