সাকা হুদা নাসিমসহ ২০ জনকে বিভিন্ন কারাগারে স্থানান্তর

যৌথ বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়া বিএনপি ও আওয়ামী লীগের শীর্ষ রাজনীতিকসহ ২০ জনকে সোমবার রাতে দেশের বিভিন্ন কারাগারে পাঠানো হয়েছে। র‌্যাব ও পুলিশের কড়া প্রহরায় বিশেষ ব্যবস্থায় তাদের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মাইক্রোবাসযোগে পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন কারাগারে নেয়া হয়। রাত সাড়ে ৮টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ১০টি মাইক্রোবাসে করে তাদের স্থানান্তর করা হয়। রাত সাড়ে ৮টায় আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও সাবেক সংসদ সদস্য লোটাস কামালকে নিয়ে প্রথম গাড়িটি সিলেটের উদ্দেশে যাত্রা করে। রাত সাড়ে ৯টায় বিএনপির সাবেক প্রতিমন্ত্রী সালাহউদ্দিন আহমেদ ও সাবেক সাংসদ মোসাদ্দেক আলী ফালুকে খুলনায় পাঠানো হয়। তৃতীয় গাড়িটি বিএনপি নেতা সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে নিয়ে রংপুর কারাগারে উদ্দেশে যাত্রা করে রাত ৯টা ৫০ মিনিটে। রাত ১০টা ৫ মিনিটে সাবেক প্রতিমন্ত্রী মীর নাছির উদ্দিন ও সাবেক সাংসদ মঞ্জুরুল আহসান মুন্সিকে নিয়ে যাওয়া হয় বগুড়া কারাগারে। রাত ১০টা ১৫ মিনিটে আওয়ামী লীগ নেতা সালমান এফ রহমান ও সাবেক সাংসদ মুফতি শহীদুল ইসলামকে নিয়ে পঞ্চম গাড়িটি রওনা হয় ময়মনসিংহ কারাগারের উদ্দেশে। রাত সাড়ে ১০টায় সাবেক সাংসদ নাসের রহমান ও আলী আসগার লবীকে স্থানান-র করা হয় কুমিল্লা কারাগারে। সাবেক প্রতিমন্ত্রী আমানউল্লাহ আমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুকে নিয়ে যাওয়া হয় চট্রগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে। ১০টা ৪০ মিনিটে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ ও টিএন্ডটি সিবিএ নেতা ফিরোজ মিয়াকে নেয়া হয় নারায়ণগঞ্জ কারাগারের। ১০টা ৫৫ মিনিটে সাবেক মন্ত্রী ড. মহিউদ্দীন খান আলমগীর, সাবেক সাংসদ কামাল আহমেদ মজুমদার ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এপিএস ড. আওলাদ হোসেন ও পিএ মাহমুদ হাসান বাবুলকে কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়।
এ নেতাদের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে সরিয়ে নেয়ার সময় আশপাশের এলাকায় নেয়া হয় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বিপুলসংখ্যক র‌্যাব, পুলিশ ও কারাগারের নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মীরা পুরো এলাকা ঘিরে রাখে। উৎসুক জনতা ও কারাবন্দি নেতাদের ব্যক্তিগত ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় কারাগারের প্রধান গেটের সামনে ছিলেন। একে একে গাড়িগুলো কারাগার থেকে বের হলে নেতৃবৃন্দ তাদের উদ্দেশে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান।
এ ব্যাপারে ডিআইজি (প্রিজন) মেজর হায়দার বলেন, ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ধারণক্ষমতা কম। ভিন্নমতাদর্শের ৫/৬ জনকে এক কক্ষে রাখায় কিছু সমস্যাও হচ্ছিল। সবকিছু চিন-া করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদের ঢাকার বাইরে পাঠানো হচ্ছে। নিরাপত্তার কারণে নেতৃবৃন্দকে রাতে পাঠানো হচ্ছে বলে মেজর হায়দার জানান। Source:দৈনিক যুগান্তর
Date:2007-02-13

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: