দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ

সেনাবাহিনী প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল মঈন ইউ আহমেদ বলেছেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণাকারী সরকারকে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা সহযোগিতা করছে। দুর্নীতির কারণে দেশের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

সার্কিট হাউসে গতকাল মঙ্গলবার বিভিন্ন স্তরের মানুষের উদ্দেশে বক্তব্য রাখার সময় তিনি স্পষ্ট করে বলেন যে, বেসামরিক সরকার দেশ পরিচালনা করছে। ‘দেশে কোন সামরিক শাসন নেই। জটিল পরিস্থিতিতে রাষ্ট্রপতি জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন।’

জেনারেল মঈন ইউ আহমেদ বলেন, ‘সশস্ত্র বাহিনী কেবল বেসামরিক প্রশাসনকে সহযোগিতা করছেঃ. আমরা সবাই বেসামরিক প্রশাসনের অধীনে আছি এবং সেনাবাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করছে’।

জাতির উপর জেঁকে বসা দুর্নীতি সম্পর্কে সেনা প্রধান বলেন, ‘জীবনের সর্বক্ষেত্রে দুর্নীতি ছড়িয়ে পড়েছে। এটা চলতে দেয়া যায় না। দুর্নীতিবাজদের সংখ্যা বেশি না হলেও দুর্নীতির কারণে ৯৫ শতাংশ মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে’।

কারো নাম উলেস্নখ না করে দুর্নীতিবাজ রাজনীতিকদের কঠোর সমালোচনা করে জেনারেল মঈন বলেন, ‘তারা সম্পদের যে পাহাড় জমিয়েছেন ক্যালকুলেটর দিয়ে হিসাব করা সম্ভব নয়। তাদের সম্পদের লাগামহীন লালসা এমন পর্যায়ে চলে গিয়েছিল যে, তারা দরিদ্রদের জন্য ত্রাণের ঢেউ টিন লোপাট করেছে।’

উপস্থিত মানুষদের আশ্বসত্ম করে তিনি বলেন, ‘রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী অথবা আমলা, দুর্নীতিবাজ যেই হোক না কেন তাদের ছাড়া হবে না। দুর্নীতিবাজদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। এই প্রক্রিয়া আগামীতেও অব্যাহত থাকবে’।

তিনি বলেন, বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইতিমধ্যেই কয়েকটি গুরম্নত্বপূর্ণ পদড়্গেপ গ্রহণ করেছে। নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগকে পৃথক করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সংস্কার করা হয়েছে। ভেজাল, জবরদখল ও ভূমিখেকোদের বিরম্নদ্ধে অভিযান অব্যাহত আছে। যেসব পদড়্গেপ নিলে জনগণ উপকৃত হবে তা পর্যায়ক্রমে গ্রহণ করা হবে।

সেনা প্রধান বলেন, ফলন বাড়ানোর জন্য সরকার সারে ভর্তুকি দিত। কিন্তু তা সীমানত্ম দিয়ে পাচার হত। এখন তা প্রায় বন্ধ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘দেশপ্রেমের ব্রত নিয়ে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। সোনার বাংলা গড়ার জন্য আমাদের সমস্যা খুঁজে বের করে তার সমাধান আমাদেরই করতে হবে।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে আমরা বিজয়ী হয়েছি। সাহস ও বীরত্বের সঙ্গে আমরা সাইক্লোন ও জলোচ্ছ্বাস মোকাবিলা করেছি। ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমে আমরা সমস্যার সমাধান করতে পারব।

বাসস জানায়, সেনাবাহিনী প্রধান বলেছেন, দুর্নীতি ও অপরাধের সাথে জড়িতদের রেহাই দেয়া হবে না। সেনা প্রধান বরগুনায় সংড়্গিপ্ত সফরকালে ছিন্নমূল মানুষের মধ্যে সাহায্য বিতরণ ও সেনা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। স্থানীয় সার্কিট হাউসের সভায় সেনা প্রধান মহান মুক্তিযুদ্ধে সেনাবাহিনীর গৌরবময় ভূমিকা উলেস্নখ করে বলেন, ‘আমরা ড়্গমতা দখল করতে চাই না। সরকার ও সিভিল প্রশাসনকে আমরা সহযোগিতা করছি।’ এ সময় সার্কিট হাউসে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল মোঃ শরীফ উদ্দিন, বরিশাল জেলা কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ আনিসুজ্জামান ভুঁইয়া ও বরগুনা জেলা প্রশাসক আলতাফ হোসেন। সভাশেষে সেনা প্রধান ৮০টি ছিন্নমূল পরিবারকে আবাসন প্রকল্পের দলিল হসত্মানত্মর করেন এবং দুস্থদের মাঝে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করেন।

বরিশালে সেনা প্রধান

বরিশাল অফিস জানায়, সেনাবাহিনী প্রধান বলেছেন, গত এক মাসে দেশের অবস্থা যখন এত ভাল হয়েছে তখন ৩৫ বছর চেষ্টা করলে আমরা অনেক এগিয়ে যেতাম। গতকাল দুপুরে বরিশাল সার্কিট হাউসে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং নগরীর সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

মঈন ইউ আহমেদ বলেন, আশা করেছিলাম গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক নেতৃত্ব গত ১৫ বছর ভালোভাবে দেশ পরিচালনা করবে। কিন্তু তা হয়নি। রাজনীতিবিদরা দেশের স্বার্থের পরিবর্তে নিজের স্বার্থ দেখেছেন। যেখানেই হাত দিয়েছি সেখানেই দুর্নীতি। হাসপাতালের রোগির খাবার পর্যনত্ম সুস্থ মানুষ খেয়েছে। ত্রাণের ঢেউ টিন এখন উদ্ধার হয় দুর্র্নীতিবাজদের গোডাউন থেকে। যেখানে বোরো চাষ হয় না সেখানেও সার বরাদ্দ দিয়ে গোডাউন থেকে পাচার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বড় বড় দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীদের ধরা হচ্ছে। এটা কেবল শুরম্ন। একে একে সকলকেই ধরা হবে যাতে ভবিষ্যতে আর কেউ এমন দুর্নীতি করার সাহস না পায়। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। তিনি উচ্ছেদ অভিযান সম্পর্কে বলেন, শুধু বসিত্মবাসীদের নয় বিল্ডিং দখলদারদেরও উচ্ছেদ করা হবে।

সেনা প্রধান বলেন, আমাদের প্রচুর সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও দুর্নীতি সবকিছুকে মস্নান করে দিয়েছে। দুর্নীতির কবল থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। সেনা প্রধান সবাইকে দেশ গড়ার কাজে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে বলেন, সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য আমাদের অবশ্যই কিছু ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-02-14

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: