জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠন হতে পারে

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই ‘জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল’ গঠনের কথা ভাবছে ড. ফখরুদ্দীন আহমদের সরকার। দেশে সন্ত্রাস-দুর্নীতিকে সহনীয় পর্যায়ে রাখতে এবং আনত্মর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশের ভাবমর্যাদা বৃদ্ধি ও নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার রাশ ধরার লক্ষ্যেই সরকার এ কাউন্সিল গঠনের চিনত্মাভাবনা করছে।
সূত্রমতে, বিশিষ্ট সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীসহ সুশীল সমাজ ও রাজনীতিকদের কারো কারো সাম্প্রতিককালের দাবির আলোকেই সরকার জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠনের উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে। এর অন্যতম লক্ষ্য হচ্ছে সন্ত্রাস-দুর্নীতির বিরুদ্ধে বর্তমানে শুরু করা অভিযান ভবিষ্যতে নির্বাচিত সরকারের শাসনামলেও দলনিরপেক্ষভাবে অব্যাহত রাখার নিশ্চয়তা বিধান।সাবেক দুএকজন রাষ্ট্রপতি, সাবেক কজন ও বর্তমান সেনাপ্রধান, সামরিক বিশেষজ্ঞ, আইনজ্ঞ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সমন্বয়ে এ কাউন্সিল গঠনের প্রসত্মাব করা হতে পারে। কাউন্সিল গঠনের পর দেশে প্রথমবারের মতো নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর একজন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রাখার বিধানেরও চিনত্মাভাবনা রয়েছে যাতে জাতীয় নিরাপত্তা সম্পর্কিত বিষয়ে একক সিদ্ধানত্ম না নিয়ে প্রধানমন্ত্রী উপদেষ্টার পরামর্শ গ্রহণে বাধ্য থাকেন।
জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠনের ব্যাপারে ড. কামাল হোসেন গত শুক্রবার আমাদের সময়কে বলেছেন, এ কাউন্সিল গঠনের দাবি আমরা বহুদিন ধরে করে আসছি। পৃথিবীর বহু দেশে এ ধরনের কাউন্সিল রয়েছে। ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিল থাকলে দেশে জঙ্গিবাদ ও রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুটপাটের এই প্রসার ঘটতো না। নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীও এতো স্বেচ্ছাচারী হতেন না। সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বি চৌধুরী সম্প্রতি ‘দুর্নীতি ও সন্ত্রাস দমন না করা হলে নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে না’ শীর্ষক শিরোনামে তার এক প্রবন্ধে বলেছেন, সাংবিধানিকভাবে একটি জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠনের এখনই মোক্ষ সময়। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিলে সাধারণ মানুষ খুশি হবে এবং তারা সরকারের প্রতি আরো আস্থাশীল হবে। আনত্মর্জাতিক পর্যায়েও দেশের ভাবমূর্তি বাড়বে।
সাবেক সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) নূরউদ্দিন খান বলেন, ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিল গঠনকে আমি জোরালোভাবে সমর্থন করি। এ ধরনের কাউন্সিল থাকলে নির্বাচিত সরকার অধিকতর গণতান্ত্রিক হবে। বিশ্বের যেসব দেশে এ ধরনের কাউন্সিল রয়েছে বাংলাদেশের সরকার প্রয়োজনে তাদের সহায়তা নিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠন করতে পারে বলে তিনি অভিমত দেন। Source:দৈনিক আমাদের সময়
Date:2007-02-22

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: