আগুন মোকাবেলায় বহুতল ভবনগুলোর করুণ দশা

বিএসইসি ভবনে অগ্নিকাণ্ডের খবরে ফ্রেঞ্চ নিউজ এজেন্সি এএফপি লিখেছে, অফিস ও কলকারখানায় আগুন সংক্রান্ত নিরাপত্তার অভাবের জন্য বাংলা-দেশের কুখ্যাতি রয়েছে৷ তাদের এ মন্তব্য রূঢ় হলেও সত্য প্রমাণিত হয়েছে কালকের এই অগ্নিকাণ্ডে৷
১১ তলা ভবনের সিড়ি ও লিফট কোনোটাই স্বাভাবিক সময়েই ওঠা-নামার জন্য অনুকূল ছিল না৷ বহুতল ভবনের জন্য জরুরি কোনো ফায়ার এসকেপ রুটও ছিল না এতে৷ সবচেয়ে ভয়ানক কথা- অভ্যন্তরীণ অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থাও ছিল না এ ভবনে অবস্থিত কোনো অফিসেই৷ ফলে আগুন একের পর এক তলায় ছড়িয়ে পড়েছে অবাধে৷
শুধু বহুতল ভবন নয়, যে কোনো উচ্চতার যে কোনো ভবন, যেখানে একসঙ্গে অনেক মানুষ কাজ বা বিনোদনের জন্য জড়ো হন সেখানে ফায়ার ডৃল একটি অপরিহার্য অনুশীলন৷ এই ডৃলে লোকজনকে শেখানো হয় আগুন বা ভূমিকম্পের মতো দুর্যোগে কি করে নিজেকে এবং পাশের সহকর্মী বা বন্ধুটিকে রক্ষা করতে হয়৷ কিন্তু আমাদের দেশে অন্য সব প্রতিষ্ঠানের মতো এখানেও ছিল না এ রকম কোনো ব্যবস্থা৷
বিএসইসি ভবনে অবস্থিত টিভি চ্যানেল এনটিভির অফিস৷ সুপন রায় সেখানকার স্পেশাল করেসপনডেন্ট৷ আগুন লাগার পর মিডিয়াকর্মীদের জিজ্ঞাসার জবাবে এক মর্মান্তিক সত্য তুলে ধরেন তিনি৷ ‘গার্মেন্ট ফ্যাক্টরিতে আগুন লাগার ঘটনা আমাদের দেশে এক সময় নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছিল৷ তখন আমরা ওই ঘটনা কাভার করতে গিয়ে গার্মেন্ট মালিক পক্ষকে প্রশ্ন করতাম- আগুন নেভানোর জন্য তাদের অভ্যন্তরীণ কোনো প্রস্তুতি ছিল কি না৷ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই পাওয়া যেত নেতিবাচক জবাব৷ আর আজ আমাকেই দিতে হচ্ছে একই রকম জবাব, না আমাদের অফিসেও তেমন কোনো ব্যবস্থা ছিল না৷’ ক্ষুব্ধ মন্তব্য সুপনের৷
সূত্রঃ যাযাদি, 27-02-07

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: