আ’লীগ কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে হাসিনার প্রস্তাব – রাজনৈতিক দলগুলোকে রেজিস্ট্রেশন দেয়া উচিত প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলোর প্রাপ্ত ভোটের শতকরা হারের ভিত্তিতে নির্ধারণ করা যেতে পারে কোন রাজনৈতিক দলটি থাকবে আর কোনটি থাকবে না৷ ভোটপ্রাপ্তির সেই হার ১০ পার্সেন্ট, নাকি ১৫ পার্সেন্ট হবে তা আলোচনার ভিত্তিতে ঠিক করা যেতে পারে৷ গতকাল দুপুরে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার দ্বিতীয় দিনে তিনি এ কথা বলেন৷
রাজনৈতিক দলের রেজিস্ট্রেশন এবং ইসির (ইলেকশন কমিশন) সংস্কার সম্পর্কে তিনি বলেন, ইসি রাজনৈতিক দলের রেজি-স্ট্রেশনের কথা বলছে৷ আমরা তাদের সঙ্গে একমত৷ রাজনৈতিক দলের রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে ভোটপ্রাপ্তির বিষয়কে বিবেচনায় আনা যেতে পারে৷ নির্বাচনে কোন দল কতো শতাংশ ভোট পায় তার ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে ওই রাজনৈতিক দল থাকবে, কি থাকবে না৷ এক্ষেত্রে আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করতে হবে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী দলকে সর্বনিম্ন কতো পার্সেন্ট ভোট পেতে হবে৷ এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়নের প্রয়োজন রয়েছে বলে জানান৷
শেখ হাসিনা বলেন, কেয়ারটেকার সরকার সংবিধানের ৫৮ (গ) অনুযায়ী শপথ নিয়েছেন৷ সংবিধানের বিধান অনুযায়ী সরকারের ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন সম্পন্ন করার কথা রয়েছে; কিন্তু ইতিমধ্যে ৫০ দিন পার হয়ে গেছে৷ অথচ নির্বাচনী প্রক্রিয়া সেভাবে এগুচ্ছে না৷ তিনি আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ভোটার তালিকা তৈরি করে দ্রুত নির্বাচনের উদ্যোগ নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান৷
যৌথ বাহিনীর অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোটের দেয়া তালিকা অনুযায়ী অভিযান চালানো হচ্ছে৷ আমাদের দাবি প্রকৃত দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীদের তালিকা তৈরি করে গ্রেফতার করতে হবে৷ যাদের বিরুদ্ধে দুর্র্নীতির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে এবং রাজনীতিকে যারা দুর্বৃত্তায়ন করেছে, তাদের ধরা হোক৷ তিনি বিনা দোষে কোনো ব্যক্তি বা কারো পরিবারকে যেন হয়রানি করা না হয় সে জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান৷ তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, প্রমাণ ছাড়া যেন কোথাও হাত না দেয়া হয়৷
শেখ হাসিনা আবারো নির্বাচনী প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে দ্রুত স্বচ্ছ ব্যালট বক্স তৈরির কাজ শুরুর আহ্বান জানান এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের একটি নমুনা স্বচ্ছ ব্যালট বক্স দেখান৷ এই ব্যালট বক্সে তিনি ভোটদানের পদ্ধতিরও বর্ণনা করেন৷ তিনি বলেন, আমাদের প্রতিনিধি অবিলম্বে এ নমুনা ব্যালট বক্সটি ইসিতে নিয়ে যাবে৷ এটা দেখে তারা যেন ব্যালট বক্স তৈরির উদ্যোগ নিতে পারে৷ তিনি আরো বলেন, স্বচ্ছ ব্যালট বক্স তৈরির জন্য বিদেশি প্রযুক্তির প্রয়োজন নেই৷ দেশি প্রযুক্তিতেই তৈরি করা সম্ভব৷
যৌথ বাহিনীর অভিযানে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা ধরাছোয়ার বাইরে থাকায় বিস্ময় প্রকাশ করে শেখ হাসিনা বলেন, জামায়াত এ দেশে জঙ্গিবাদের জন্ম দিয়েছে৷ জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প সৃষ্টি, বাংলাভাই-শায়খ রহমানদের জন্ম- সব কিছুর পেছনেই জামায়াতের ভূমিকা রয়েছে৷ অথচ তাদের ধরা হচ্ছে না৷ তিনি জঙ্গিবাদের হোতা এবং গ্রেনেড-বোমা হামলার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি করেন৷
রাজনীতিকদের ঢালাওভাবে গালাগাল না করার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, যারা মাটি ও মানুষের রাজনীতি করে, জনগণের জন্য কাজ করে, তাদেরও যখন গালাগাল করা হয় তখন খারাপ লাগে৷ তিনি বলেন, প্রকৃত রাজনীতিকরা দুর্নীতি বা লুটপাট করে না৷ জনগণের প্রতি তাদের একটা দায়বদ্ধতা থাকে৷ আওয়ামী লীগের পাচ বছরের শাসনামলই তার প্রমাণ৷
তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট গত পাচ বছরে দুর্নীতি, লুটপাটের মাধ্যমে দেশকে এমন জায়গায় নিয়ে গেছে যে জন্য এখন তাদের গালি ও অপবাদ শুনতে হচ্ছে৷ তিনি প্রশ্ন করেন, তাদের অপকর্মের অংশীদার আমাদের করা হচ্ছে কেন? এ তিনি বলেন, কিছু লোক সবাইকে এক পাল্লায় ফেলে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়৷
আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের দু’দিনের সভায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চ, ১৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়৷ সভার প্রস্তাবে ৭ মার্চ শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ রেডিও এবং টেলিভিশনে প্রচারের জন্য কেয়ারটেকার সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়৷
প্রস্তাবে বিগত সরকারের গ্রহণ করা শ্রম আইনের সঙ্গে আইএলও কনভেনশনের অসঙ্গতি দূর করে শ্রমজীবী মানুষের অনুকূল আইন তৈরির দাবি জানানো হয়৷ এছাড়া দুর্নীতি ও সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে নিরপরাধ লোকদের হয়রানি না করার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়৷ একই সঙ্গে সার ও বিদ্যুত্ সমস্যা সমাধানে বিশেষ প্রোগ্রাম গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়৷

সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/view_news.php?News-ID=31346&issue=241&nav_id=1

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: