ব্যারিস্টার মওদুদ ও পরিবারের সকলের ব্যাংক একাউন্ট ফ্রিজড

সাবেক বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, তার স্ত্রী হাসনা মওদুদ ও তাদের ছেলেমেয়েদের সব ব্যাংকিং লেনদেন স্থগিত (ফ্রিজড) রাখার জন্য সকল বাণিজ্যিক ব্যাংককে চিঠি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে পরিচালিত সকল ব্যাংক হিসাব এনবিআরের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেলের মহাপরিচালকের কাছে সরবরাহ করার জন্য সকল বাণিজ্যিক ব্যাংক কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ জানানো হয়েছে। এনবিআর সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে। সূত্রটি জানিয়েছে, এনবিআরের গোয়েন্দা ইউনিটের তদনেত্ম ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিপুল পরিমাণ কর ফাঁকির বিষয়টি ধরা পড়েছে। এনবিআর-এর সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেলের মহাপরিচালক মোসত্মাক হোসেন সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের কাছে গত ১ মার্চ এই চিঠি প্রেরণ করেন। চিঠিতে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের কর ফাঁকির বিষয়টি তদনত্মাধীন রয়েছে উল্লেখ করে বলা হয়, পুনরাদেশ না দেওয়া পর্যনত্ম ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে বা যৌথ নামে ব্যাংকে সংরক্ষিত সকল ধরনের হিসাব ও লকার (ভল্ট) হতে সকল প্রকার অর্থ উত্তোলন এবং অন্যত্র স্থানানত্মরকরণ স্থগিত করে সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেলকে জানানোর জন্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। চিঠিতে আরো বলা হয়, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের নিজ নামে বা অন্যের সঙ্গে যুগ্ম নামে পরিচালিত কোনো চলতি হিসাব, সঞ্চয়ী হিসাব, মেয়াদি আমানত হিসাব, ঋণ হিসাব (হাইপো/প্লেজ) ফরেন কারেন্সি একাউন্ট, ক্রেডিট কার্ড হিসাব খোলার তারিখ হতে যে তারিখে প্রিন্ট হবে সে তারিখ পর্যনত্ম সময়কালের ব্যাংক বিবরনী ৮ মার্চের মধ্যে সরবরাহ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়। এ ছাড়া পূর্বে চালু ছিল অথচ বর্তমানে বন্ধ আছে এমন ব্যাংক হিসাবও সরবরাহ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়। শুধু তাই নয়, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে কোনো ভল্ট (লকার) এবং সঞ্চয়পত্র থাকলে সে সংক্রানত্ম সকল তথ্যও সরবরাহ করার জন্য সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪-এর ১১৭(৪) ও ১১৩(এফ) অনুযায়ী জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এই চিঠি প্রেরণ করে। চিঠিতে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের গুলশানের বাড়ির ঠিকানা এবং মতিঝিলস্থ চেম্বারের ঠিকানার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।
এনবিআরের গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, তারা অনুসন্ধান করে নিশ্চিত হয়েছে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও তার স্ত্রী এবং পরিবারের সদস্যরা সরকারের বিপুল পরিমাণ কর ফাঁকি দিয়েছেন। সূত্রটি জানিয়েছে, বিদেশের বিভিন্ন ব্যাংকেও মওদুদ আহমদ টাকা জমা রেখেছেন। গোয়েন্দারা বিদেশের ব্যাংকে মওদুদ আহমদের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ জানার জন্য উদ্যোগ নিচ্ছে বলে জানা গেছে। Source:ভোরের কাগজ
Date:2007-03-06

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: