সেলিম ওসমানকে খুঁজছে পুলিশ : ব্যাংক হিসাব জব্দ

সন্ত্রাসী লালন, সন্ত্রাসীদের অর্থায়নসহ বিভিন্ন অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ চেম্বারের সাবেক সভাপতি সেলিম ওসমানকে খুঁজছে পুলিশ। ইতিমধ্যে তার ও পরিবারের সদস্যদের ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। সেলিম ওসমান আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমান ও জাপা নেতা নাসিম ওসমানের ভাই। অন্যদিকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বাজেয়াপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে শামীম ওসমানের সম্পদ।
সূত্র জানায়, সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের রাঘববোয়ালদের দুর্নীতি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করতে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী, র‌্যাব, দুর্নীতি দমন কমিশন ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সমন্বয়ে গঠিত একটি বিশেষ টিম। নারায়ণগঞ্জ চেম্বারের সাবেক সভাপতি সেলিম ওসমানের বির”দ্ধে সন্ত্রাসী লালন, সন্ত্রাসীদের অর্থায়ন, ভাই এমপি হওয়ার সুবাদে সরকারি ক্ষমতা ব্যবহার করে আর্থিক দুর্নীতি ও অবৈধভাবে সম্পদের মালিক হওয়ার প্রচুর তথ্য পান তারা। এসব তথ্য পাওয়ার পর দুর্নীতি দমন কমিশন ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সেলিম ওসমান এবং তার পরিবারের সদস্যদের ব্যাংক হিসাব থেকে সব ধরনের অর্থ উত্তোলন ও স্থানান-র বন্ধের নির্দেশ প্রদান করে।
সূত্র জানায়, বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সেলিম ওসমানের বড় ভাই নাসিম ওসমানের বাড়ির কেয়ারটেকার নুর”ন্নবীকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নাসিম ওসমানের ছেলে আজমেরি ওসমান এ হত্যাকাণ্ড ঘটায় বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া আজমেরি ওসমানের পিস-লের গুলিতে আলমগীর নামের আরেক যুবক নিহত হওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। শামীম ওসমান সে সময় এমপি ছিলেন। অভিযোগ রয়েছে, সেলিম ওসমান শামীম ওসমানের ক্ষমতা ব্যবহার করে এ দুটি হত্যাকাণ্ড ধামাচাপা দিয়ে ভাতিজাকে রক্ষা করেন। নারায়ণগঞ্জের গোয়েন্দারা এসব তথ্য জানিয়েছে বিশেষ টিমকে। বিশেষ টিম এ ব্যাপারে আরও বিস-ারিত তথ্য সংগ্রহ করছে।
বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জের অধিকাংশ রাজনৈতিক, ব্যবসায়িক ও পেশাজীবী সংগঠন জিম্মি করে রেখেছিলেন। এ সময় একটি অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস-দের সাহায্য দিতে তিনি ১৫ লাখ টাকা উত্তোলন করেও খরচ করেননি।
সূত্র আরও জানায়, জর”রি অবস্থা জারির পরই সরকার অবৈধ উপায়ে অর্জিত সম্পদের ব্যাপারে খোঁজখবর নিতে পারে আন্দাজ করতে পেরে সেলিম ওসমান নগদ অর্থের একটি বিশাল অংশ তার ঘনিষ্ঠ তিন ব্যবসায়ীর কাছে জমা রেখেছেন। এ তিন ব্যবসায়ীর অর্থসম্পদ ও ব্যাংক একাউন্ট সম্পর্কেও খোঁজখবর নেয়া হ”েছ। এছাড়া জর”রি অবস্থা জারির পর সেলিম ওসমান তার দুটি মোবাইল ফোনে কাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বিশেষ টিম মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোর কাছে সে তালিকা চেয়ে পাঠিয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার সিবগাতউল্লাহ খান সাংবাদিকদের জানান, গ্রেফতারের জন্য পুলিশ সেলিম ওসমানকে খুঁজছে। সন্ত্রাসী লালন, সন্ত্রাসীদের অর্থায়নসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে সেলিম ওসমানের বির”দ্ধে।
৩ ফেব্র”য়ারি সেলিম ওসমানকে ধরতে র‌্যাব শহরের উত্তর চাষাঢ়ায় তার বাড়িতে অভিযান চালায়। ২০০১ সালে অপারেশন ক্লিনহার্টের সময় র‌্যাব তাকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছিল।
অন্যদিকে দুর্নীতি দমন কমিশনের নাম প্রকাশে অনি”ছুক এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, শামীম ওসমান সশরীরে এসে সম্পদের হিসাব প্রদান না করায় তার সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার প্রক্রিয়াটি এখন শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি দেয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শামীম ওসমানের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান। Source:দৈনিক যুগান্তর
Date:2007-03-07

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: