সন্দেহভাজন দুর্নীতিবাজদের দ্বিতীয় তালিকা আসছে আগামী সপ্তাহে

দুর্নীতির দায়ে সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় পর্যায়ের নোটিস আগামী সপ্তাহে জারি করা হচ্ছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, দুর্নীতিবাজদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত এবং সেগুলো নিলামে বিক্রির ক্ষমতাও পাচ্ছে কমিশন। গতকাল বুধবার দুদকের ঐ কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, নয়া তালিকায় ৫০ কিংবা ১০০ জনের নাম থাকতে পারে।

এদিকে দুর্নীতিসহ সকল গুরুতর অপরাধ দমন অভিযান পরিচালনার লক্ষে সরকার গঠিত জাতীয় সমন্বয় কমিটি গতকাল ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের অফিসার্স মেসে প্রথম সভা করেছে। এতে সভাপতিত্ব করেন যোগাযোগ উপদেষ্টা জাতীয় কমিটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অবঃ) এম এ মতিন। জাতীয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক নবম পদাতিক ডিবিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীসহ অন্য সদস্যরা এ সভায় যোগ দেন। দেশব্যাপী দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এতে আলোচনা করা হয়।

সভায় কমিটির কর্মদড়্গতা বাড়ানো এবং অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের বিষয়ে আলোচনা হয়। এছাড়া প্রসিকিউশন দলের নির্বাচন, তদনেত্মর পদ্ধতি, ধরন এবং এর উন্নতিকরণের প্রয়োজনীয়তা, তদনত্ম কাজের সহায়তায় বিভিন্ন সংস্থার সাথে টাস্কফোর্সের সমন্বয়ের ওপর জোর দেয়া হয়। সভায় ঢাকার বাইরে দ্রম্নত টাস্কফোর্স গঠন, কেন্দ্রীয় কমিটি ও তার ব্যবস্থাপনার বিষয়ে প্রশাসনিক আলোচনা হয়।

ঐ কর্মকর্তা জানান, কমিশনের আইন সংস্কার, জনবল কাঠামোসহ প্রয়োজনীয় বিধি-বিধান আগামী সপ্তাহেই পাওয়া যাবে। একইসঙ্গে সন্দেহভাজন দুর্নীতিবাজদের বিরম্নদ্ধে সম্পত্তির হিসেব চেয়ে দ্বিতীয় পর্যায়ে নোটিস জারি করবে কমিশন।

জানা গেছে, প্রায় ১২শ’ লোকবল নিয়ে কমিশনের নতুন জনবল কাঠামো তৈরি করা হচ্ছে। এদের মধ্যে মামলার তদনত্ম কাজ পরিচালনার জন্য ৩০০ তদনত্ম কর্মকর্তাও (আইও) থাকবেন। সাবেক দুর্নীতি দমন ব্যুরোর ৩০ থেকে ৪০ জন তদনত্ম কর্মকর্তাকে পুনরায় কমিশনে বহাল করা হতে পারে।

এদিকে গতকাল বিকেলে কমিশনের চেয়ারম্যান হাসান মশহুদ চৌধুরীর সঙ্গে সাড়্গাৎ করেছেন এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) আবাসিক প্রতিনিধি হুয়া দু। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রদূত ডগলাস ফসকেট ও উপ-রাষ্ট্রদূত রিচার্ড রজার্স তার সঙ্গে দেখা করেন। সাড়্গাৎ শেষে উভয় প্রতিনিধিদলের পড়্গ থেকে সাংবাদিকদের জানানো হয়, কমিশনকে আরো দড়্গ ও গতিশীল করার জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেয়ার বিষয়ে চেয়ারম্যানের সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়েছে। এডিবি’র প্রতিনিধি হুয়া দু সাংবাদিকদের বলেন, আগামীতে কী ধরনের সাহায্য করা হবে সে ব্যাপারে ২০ মার্চ কমিশনের সঙ্গে আমাদের আরেকটি প্রতিনিধিদলের আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তিনি বলেন, কমিশনের বর্তমান কাজে আমরা খুবই খুশি।

কমিশনের চেয়ারম্যান হাসান মশহুদ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, তারা সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসেছিলেন। তবে আমি তাদের কাছে কমিশনকে আরো কার্যকর করতে সহযোগিতা চেয়েছি। তারা সব ধরনের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-03-15

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: