তারেকের বিরুদ্ধে চার্জশিট গৃহীত ।। জামিন নামঞ্জুর

গতকাল সোমবার বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব তারেক রহমান ও তার ব্যক্তিগত সচিব মিয়া নূরুদ্দিন অপুর বিরুদ্ধে এক কোটি টাকার চাঁদাবাজির মামলার দায়েরকৃত চার্জশিট সিএমএম আদালত গ্রহণ করেছেন। কাল তারেক রহমানকে আদালতে হাজির করা হয়। তার ব্যক্তিগত সচিব অপুকে গতকাল পর্যন্ত পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। আদালত অপুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি এবং তার সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে তারেক রহমানের জামিনের আবেদন মহানগর দায়রা জজ না-মঞ্জুর করেছেন।

আমাদের কোর্ট রিপোর্টার জানান, বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব তারেক রহমানের বিরম্নদ্ধে দাখিলকৃত দ্রম্নত বিচার আইনে চাঁদাবাজির মামলায় চার্জশিট আদালত গ্রহণ করেছে। গতকাল ঢাকার দ্রম্নত বিচার-২-এর বিচারক মেট্রোপলিটান ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রউফ খান তারেক রহমানের উপস্থিতিতে চার্জশিট গ্রহণ করেন এবং পলাতক আসামী নূরম্নদ্দিন অপুর বিরম্নদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাসহ তার সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ দিয়েছেন। গ্রেফতারি পরোয়ানা ও সম্পত্তি ক্রোক সংক্রানত্ম প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৯ মার্চ দিন ধার্য করেছেন সংশিস্নষ্ট আদালত।

গতকাল সকাল সাড়ে ১১টায় র‌্যাব ও ডিএমপি পুলিশের বাড়তি ও কঠোর প্রহরায় একটি প্রিজন ভ্যানে করে কারাগার থেকে তারেক রহমানকে ঢাকা সিএমএম আদালতে হাজির করা হয়। তারেক রহমানের মুখে খোঁচা খোঁচা দাড়ি এবং তাকে খুব বিষণ্ন দেখাচ্ছিল। প্রিজন ভ্যান থেকে নামিয়ে তারেক রহমানকে সরাসরি ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুর রউফ খানের আদালতে নেয়া হয়। সে সময় তারেক রহমানের পড়্গে ২ শতাধিক আইনজীবী আদালতে আইনী সহায়তা দেয়ার জন্য উপস্থিত ছিলেন। তারেক রহমান অসুস্থ থাকায় কাঠগড়ায় বসার জন্য তাকে একটি কাঠের চেয়ার দেয়া হয়।

আদালতে তারেক রহমানকে ১০ মিনিটের মত রাখা হয়। এ সময় তারেক রহমান তার আইনজীবীদের সাথে কথা বলেন। আদালতে তারেক রহমানের পড়্গে বলা হয়, মামলাটি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দায়ের করা হয়েছে। এ সময় বিএনপি যেহেতু ড়্গমতায় ছিল না কাজেই বাদী ভয়ে মামলা করতে সাহস পায়নি বাদির এ অভিযোগ সত্য নয়। বরং বাদিকে দিয়ে অন্যায়ভাবে মামলাটি করানো হয়েছে।

আদালতে তারেক রহমানের পড়্গে এডভোকেট সানাউলস্নাহ মিয়া, বোরহান উদ্দিন, খোরশেদ আলম, মাসুদ আহমেদ তালুকদার, গোলাম মোসত্মফা খান, ওমর ফারম্নক ফারম্নকী, মোহাম্মদ আলী, মহিউদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মোহাম্মদ মোমিন উলস্নাহ বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব তারেক রহমানের জামিনের আবেদন না-মঞ্জুর করেছেন। তারেক রহমানের বিরম্নদ্ধে দায়েরকৃত এক কোটি টাকার চাঁদাবাজির মামলায় ৮ মার্চ তার জামিনের আবেদন নাকচ করে ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুন আল রশিদ। ম্যাজিস্ট্রেটের এ আদেশের বিরম্নদ্ধে মহানগর দায়রা জজ আদালতে তারেক রহমানের জামিনের ৮৭৪ নম্বর আবেদনটি করা হয়। গতকাল দুপুরে এ আবেদনটির উপর শুনানি করা হয়। শুনানিকালে আটক তারেক রহমানের পড়্গে আদালতে বর্ণনা দিতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র এডভোকেট খন্দকার মাহবুব উদ্দিন। সাবেক বিচারপতি টিএইচ খানও তারেক রহমানের জামিন চেয়ে আদালতে যুক্তি তুলে ধরনে। সিনিয়র এডভোকেট আব্দুল ওয়াদুদ তারেক রহমানের পড়্গে আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালতে শুনানি চলাকালে রাষ্ট্রপড়্গ থেকে এক কোটি টাকার জব্দকৃত আলোচিত চেকটি প্রদর্শন করার সময় চান। বিচারক চেকটি দেখে আদেশ প্রদান করবেন মর্মে জানান। পরে সন্ধ্যায় আদেশে জানা যায়, জামিনের আবেদন না-মঞ্জুর করা হয়েছে।

গতকাল তারেক রহমানের জামিনের শুনানিকালে সাবেক বিচারপতি টিএইচ খান ও এডভোকেট খন্দকার মাহবুব উদ্দিন আদালতে বলেন, এ মামলার ঘটনাটি ৩১ ডিসেম্বর চাঁদা দাবি এবং ৪ জানুয়ারি টাকা প্রদানের সময় বিএনপি ড়্গমতায় ছিল না। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ঘটনা দেখিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। ভয়-ভীতির কারণে বাদি মামলা করতে পারেননি এটা বাদির মিথ্যা অভিযোগ। তারেক রহমান কখনোই বাদির কাছে চাঁদা দাবি করেননি। এ সংক্রানত্ম কোন প্রমাণ বাদি দেখাতে পারবেন নি। বাদি যে চেকটির কথা বলে মামলা করেছেন সে চেকে তারেক রহমানের নাম নেই। তারেক রহমান বাদির কাছ থেকে টাকা গ্রহণ করেছেন বাদি তার এজাহারে এ কথা বলেননি। কাজেই তারেক রহমান ন্যায়বিচার পাবেন এবং মুক্তি পাবেন। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-03-20

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: