ভোটার আইডি কার্ড করে দ্রুত নির্বাচন করা জরুরি : কমনওয়েলথ মহাসচিব

দ্রুত ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করে নির্বাচন অনুষ্ঠান করা জরুরি হয়ে পড়েছে। কোনোভাবেই নির্বাচন আয়োজনে ধীরগতি হওয়া উচিত হবে না। কারণ যে কোনো গণতান্ত্রিক দেশের জন্য জনপ্রতিনিধিত্বমূলক নির্বাচিত সরকার গুরুত্বপূর্ণ। দু’দিনের সফর শেষে হোটেল সোনারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে কমনওয়েলথ মহাসচিব ডোনাল্ড ম্যাককিনন গতকাল বুধবার একথা বলেন।
কোনো গণতান্ত্রিক দেশেই দীর্ঘ সময়ের জন্য জরুরি অবস্থা রাখা উচিত নয় মনত্দব্য করে ম্যাককিনন বলেন, বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক সরকারের জরুরি অবস্থা তুলে নিতে অযথা কালক্ষেপণ করা ঠিক হবে না। একইসঙ্গে রাজনৈতিক দলের প্রতি নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। তিনি রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের প্রতি সুসম্পর্ক বজায় রেখে নতুন ভোটার তালিকা প্রণয়ন ও নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় যৌথভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচিত সরকার না থাকায় জরুরি অবস্থার কারণে মৌলিক অধিকার কিছুটা খর্ব হয়েছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। কমনওয়েলথ
মহাসচিব বলেন, বাংলাদেশে এই মুহূর্তে জটিল ও কোনো কোনো ক্ষেত্রে অস্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে। এই সরকার গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে খেয়াল রাখতে হবে তা যেন দীর্ঘ না হয়। তিনি বলেন, বর্তমান অনত্দর্বর্তীকালীন সরকার সুষ্ঠু নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টিতে কাজ করছে। তাদের কিছুটা সময় লাগতেই পারে। তবে এই মুহূর্তে জাতীয় ও স্থানীয়ভাবে এদেশের কোথাও এমন কোনো কাঠামো নেই যারা জনগণের কথা শুনবে। জনগণের জন্য এই কাঠামো জরুরি এবং এটি তাদের মৌলিক অধিকার।
তিনি বলেন, বিভিন্ন মহলের সঙ্গে আলোচনায় নির্বাচনের সুনির্দিষ্ট সময় নিয়ে কোন আলোচনা হয়নি। তবে সকলেই নির্বাচন চান। এদেশের জনগণকেই নির্ধারণ করতে হবে তারা কি চায়। সংবিধানসম্মত জবাবদিহিমূলক গণতান্ত্রিক সরকারও এদেশের জনগণকেই নির্বাচন করতে হবে। আর এই বিষয়টি টেকসই গণতন্ত্রের জন্য পূর্বশর্ত।
এই প্রসঙ্গে কমনওয়েলথ মহাসচিব বলেন, আমি এখানে বিভিন্ন জনের সঙ্গে কথা বলে এটা পরিষ্কার বুঝেছি যে এই সরকারের রয়েছে জনসমর্থণ। তবে আমি এটাও বলতে চাই এই জনসমর্থন ধরে রাখাটাই এই সরকারের জন্য বড়ো চ্যালেঞ্জ। তাই সরকারের পদক্ষেপ ও পরিকল্পনাগুলো স্বচ্ছভাবে জনগণকে জানাতে হবে। আর অবশ্যই এটাও মনে রাখতে হবে এর জন্য একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের সময়সীমা গুরুত্বপূর্ণ। তা না হলে এই সরকার দ্রুত জনসমর্থন হারাতে পারে।
ম্যাককিনন জানান, এই সরকার তাকে অবহিত করেছে যে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুনর্গঠনের জন্য পাওয়া এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চায় তারা। কারণ এই সুযোগ কোনো জাতির জন্য বারবার আসে না। আর এটি বিরাট একটা কাজ যা দেশের এই পরিস্থিতিতে জনগণের সমর্থনের মাধ্যমেই করা সম্ভব। এ পর্যায়ে তিনি বলেন, এই পুনর্গঠনের কাজে সরকারকে যথাসম্ভব সহযোগিতা দিতেও কমনওয়েলথ প্রস\’ত আছে।
তিনি নতুন ভোটার তালিকা তৈরির পরপরই যথাসম্ভব দ্রুত নির্বাচন অনুষ্ঠানের ওপর গুরুত্ব দিয়ে বলেন, ছবিসহ নতুন ভোটার তালিকা জনগণের মধ্যে নির্বাচনের ফলাফলের বিষয়ে আস্থা তৈরি করবে যা অত্যনত্দ প্রয়োজনীয়। রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে গণতন্ত্রের চর্চা ও জবাবদিহিতাই দেশের গণতন্ত্রকে আরো সুদৃঢ় এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির আরো উন্নয়ন ঘটাতে পারে।
তিনি বলেন, আমি এখানে এসে জেনেছি এদেশের মানুষ তাদের গণতন্ত্র গোড়া থেকে শুরু করতে চায়। তারা চায় গণতন্ত্রে সঠিক ধারা বেয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে। তবে এটা শুধুই একটি সুষ্ঠু নির্বাচন পেতেই নয় বরং সুশাসন প্রতিষ্ঠা, সংসদ ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, মানবাধিকার রক্ষা, জবাবদিহিতাসহ সব বিষয়ে এটি উল্লেখযোগ্য।
তিনি জাতিসংঘ দুর্নীতি বিরোধী সনদে স্বাক্ষর করায় বাংলাদেশকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, তৃণমূল পর্যায় থেকে দুর্নীতি প্রতিরোধের অঙ্গীকার নিতে হবে। তবে এটির চর্চা ও বাসত্দবায়ন খুবই কঠিন হবে।
বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের প্রসত্দাব অনুযায়ী রাষ্ট্রীয় ব্যাংকগুলোকে বেসরকারিকরণ করা হবে একটি গুর\”ত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। তিনি বলেন, বেসরকারি ব্যাংকগুলো ঋণ আদায় করতে ব্যর্থ হলেও গ্রামীণ ব্যাংক চড়াসুদে দরিদ্র মানুষদের ঋণ দিচ্ছে এবং তারা সেই ঋণ শোধও করছে, এটি অত্যনত্দ পীড়াদায়ক এবং বিব্রতকর।
ম্যাককিনন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে সনত্দোষ প্রকাশ করেন। তিনি মানবাধিকার কমিশন গঠনের সিদ্ধানত্দকেও স্বাগত জানান। তিনি বলেন, সরকারকে আইনের শাসন ও মানবাধিকারের প্রতি সম্মান দেখাতে হবে। এদেশে সমপ্রতি অসংখ্য ব্যক্তিকে আটকের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি আরো বেশি গুর\”ত্বপূর্ণ। সচেতন থাকতে হবে তারা যেন মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার না হন।
উল্লেখ্য, তিনি এই সফরকালীন প্রধান উপদেষ্টা ড. ফখরুদ্দীন আহমদ, পররাষ্ট্র উপদেষ্টা ড. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সুশীল সমাজের সঙ্গে বৈঠক করেন। তিনি গতকাল বিকেলে দিলি্লর উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন।
সূত্রঃ http://bhorerkagoj.net/online/news.php?id=449&sys=1

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: