অসৎ পুলিশ সোর্সদের দৌরাত্ম্য চরমে

রাজধানীতে অসৎ পুলিশ সোর্সদের দৌরাত্ম্য চরমে পৌঁছেছে। কাউকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দিয়ে অথবা হুমকি দিয়ে নিরীহ মানুষের কাছ থেকে তারা অর্থ আদায় করছে। কখনো নিরীহ মানুষের ঘরবাড়ি বা দোকানপাটে অস্ত্র, মাদকদ্রব্য বা অন্যান্য অবৈধ মালামাল রেখে তাদের ফাঁসিয়ে দিচ্ছে জটিল কোনো মামলায়। অনেক সময় আবার এ সোর্সরাই অর্থের বিনিময়ে দাগী সন্ত্রাসীদের ছাড়িয়ে নিচ্ছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের হাত থেকে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অনেক পুলিশ কর্মকর্তাও রয়েছেন যারা এ সোর্সদের বিরুদ্ধে কিছু করতে ভয় পান।

ঢাকা মহানগর পুলিশের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রাজধানীতে পুলিশের যে সোর্স রয়েছে, তার জানা মতে এসব সোর্সের অধিকাংশই কোনো না কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়িত। এদের কেউ মাদক ব্যবসায়ী, কেউ নারী ব্যবসায়ী, কারো সঙ্গে সখ্য রয়েছে রাজধানীর দাগী সন্ত্রাসীদের, কেউ জাল টাকার ব্যবসা করছে, আবার কেউ কেউ চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িত রয়েছে। বর্তমানে এরাই পুলিশসহ আইনপ্রয়োগকারী বিভিন্ন সংস্থার সোর্স হিসেবে কাজ করছে। এদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী অপরাধীদের গ্রেফতার, অস্ত্র উদ্ধার ও মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ নানা অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা অভিযানও চালিয়ে আসছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এসব অসৎ সোর্স আন্ডারওয়ার্ল্ডের সঙ্গে জড়িত থাকায় তারা অপরাধীদের চেনে ঠিকই, কিন্তু নিজেদের স্বার্থের বিরুদ্ধে যায় এমন কোনো কাজ করে না। নিজেদের অবৈধ কর্মকাণ্ডের পথ সুগম করতেই কেবল প্রতিপক্ষদের ব্যাপারে তথ্য দিয়ে থাকে। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে পারলেই তাদের অবৈধ কর্মকাণ্ড করতে সুবিধা হয়। সূত্র জানায়, হাতেগোনা কিছু ভালো সৎ সোর্স থাকলেও অসৎদের কারণে তারা অপরাধ দমনে তেমন ভূমিকা রাখতে পারছে না। অনেক সময় তারা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের কাছে পাত্তাই পায় না। তাদের দেয়া তথ্য আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা অনেক সময় আমলেই নেয় না।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এ অসৎ সোর্সদের দৌরাত্ম্য ও নির্যাতন এখন চরম আকারে পৌঁছেছে। অনেক নিরীহ মানুষ তাদের হয়রানির শিকার হচ্ছেন। অনেকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছেন। সূত্র জানায়, রাজধানীতে এরূপ পুলিশ সোর্সের সংখ্যা কম হলেও পাঁচ শতাধিক। এরা বিভিন্ন থানা ও ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ ও সিআইডি’র সোর্স হিসেবে পরিচিত। এ পরিচয় দিয়েই তারা চরম দাপটে নানা অপরাধ করে যাচ্ছে। মাঝে মধ্যে অনেকে র‌্যাব ও যৌথ বাহিনীর সোর্স হিসেবে পরিচয় দিয়েও সাধারণ মানুষকে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। অনেক সময় থানায় গিয়ে দেখা যায় তাদের চরম দাপট। এদের অনেকে আবার বিভিন্ন থানায় দালালি করে আসছে। এ ছাড়া ডিবি অথবা সিআইডি কার্যালয়েও এদের দেখা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অনেক পুলিশ সোর্স ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে পুলিশকে ব্যবহার করে বহু নিরীহ মানুষকে পথে বসিয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে অনেক অসৎ পুলিশ সদস্য ঝামেলা এড়াতে সরাসরি উৎকোচ না নিয়ে এসব সোর্সদের ব্যবহার করছে। আবার সৎ পুলিশ সদস্যরা এসব সোর্সকে ভয় পান। ফলে সাধারণ মানুষ তো দূরের কথা, সৎ পুলিশ সদস্যরা এসব সোর্সকে ক্ষেপাতে চান না। ফলে ওই সোর্সদের হাতে জিমিম হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। অনেকে মিথ্যা মামলার শিকার হয়ে জেল খাটছেন। Source:দৈনিক নয়া দিগন্ত
Date:2007-03-28

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: