সেনাপ্রধান একটি মীমাংসিত বিষয় আলোচনায় আনতে চাইছেন

গণতন্ত্র, সরকার ব্যবস্থা ও নতুন রাজনৈতিক প্লাটফর্ম সম্পর্কে সেনাবাহিনী প্রধান লে. জেনারেল মঈন ইউ আহমেদের বক্তব্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন দেশের শীর্ষস্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা। তারা বলেছেন, সেনাপ্রধান একটি মীমাংসিত বিষয় নতুন করে আলোচনায় আনতে চাইছেন। এর ফল ভালো নাও হতে পারে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব নির্বাচন করা। সেটাই তাদের করা উচিত। তবে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে প্রয়োজনীয় সংস্কার সম্পন্ন করেই নির্বাচন হতে হবে। কেউ আবার সেনাপ্রধানের বক্তব্যকে ইতিবাচক বলেই মনে করছেন। তবে যোগাযোগ উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব) এম এ মতিন বলেছেন, সেনাপ্রধানের দেওয়া রাজনৈতিক বক্তব্য ছিল দেশের স্বার্থেই। তা জর”রি অবস্থার পরিপন্থী নয়। সেনাবাহিনী প্রধান লে. জেনারেল মঈন ইউ আহমেদ সোমবার রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতির সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে বলেছিলেন, আমাদের উচিত হবে বাংলাদেশের বর্তমান আর্থ-সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও
ঐতিহাসিক বাস্তবতার প্রেক্ষাপটে নিজেদের উপযোগী নতুন ধাঁচের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা। তিনি দেশের শাসন ব্যবস্থায় ভারসাম্য সৃষ্টির লক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেন। নতুন রাজনৈতিক দল গঠন প্রসঙ্গে সেনাপ্রধান বলেছিলেন, সব ক্ষেত্রে নতুন নেতৃত্বের পরিচালনায় প্রশাসন ঢেলে সাজাতে হবে। তবে দেশের মানুষকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে বিগত দিনের শাসকদের ব্যর্থতার প্রেক্ষাপটে তারা নতুন রাজনৈতিক দল ও নেতৃত্ব বেছে নেবে কিনা। কেউ কেউ মনে করেন, তার এ বক্তব্যে নতুন একটি রাজনৈতিক দল গঠনের প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিত রয়েছে। সেনাপ্রধানের এ বক্তব্য বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল ভোরের কাগজের পক্ষ থেকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে দেশের শীর্ষস্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

মোঃ আব্দুল জলিল : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মোঃ আব্দুল জলিলের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি ভোরের কাগজকে বলেন, সেনাবাহিনী প্রধান ভালো কথাই বলেছেন। বর্তমান বাস্তবতার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে এর বেশি আর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।

রাশেদ খান মেনন : ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও ১৪ দলের অন্যতম শীর্ষ নেতা রাশেদ খান মেনন এ প্রসঙ্গে বলেন, সেনাপ্রধান নতুন কিছু বলেননি। এসব শুনে আমরা অভ্যস্ত। তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মূল লক্ষ্য হচ্ছে নির্বাচন। সেটাই তাদের করা উচিত। সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে যে সংস্কার প্রয়োজন তা বাস্তবায়ন করে নির্বাচন দিতে হবে। নতুন ধাঁচের গণতন্ত্র এবং রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য সৃষ্টি প্রসঙ্গে সেনাপ্রধানের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা বলেন, এসব বিষয় মীমাংসিত। বহু আন্দোলনের মাধ্যমে বর্তমান ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে। নতুন করে তা আলোচনায় না আনাই ভলো। এতে আরো নতুন সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। তবে এসব বিষয়ে তাদের যদি সুনির্দিষ্ট কোনো প্রস্তাব থাকে তাহলে সেটা পার্লামেন্টের সামনে উপস্থাপন করা উচিত।

এম কে আনোয়ার : বিএনপির সহসভাপতি এম কে আনোয়ার বলেছেন, সেনাবাহিনী প্রধান যে প্রশ্নগুলো উত্থাপন করেছেন তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও মৌলিক বিষয়। দেশের গণতন্ত্র কেমন হবে এবং কারা রাজনীতি করবেন তিনি তা সুস্পষ্টভাবে বলেছেন। তার এ প্রস্তাবগুলোকে গুর”ত্বের সঙ্গে বিবেচনা করা উচিত। তবে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার মালিক জনগণ। কাজেই যে সিদ্ধান্তই নেওয়া হোক জনগণকে সঙ্গে নিয়েই তা করতে হবে।

মোঃ নুরুল ইসলাম : গণতন্ত্রী পার্টির সভাপতি ও ১৪ দলের শীর্ষ নেতা নুরুল ইসলাম এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রচলিত রাজনীতির যুগোপযোগী সংস্কার প্রয়োজন। এ বিষয়ে বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উদ্যোগের সঙ্গে আমি একমত। এ পর্যন্ত তারা যেসব পদক্ষেপ নিয়েছেন সেগুলো প্রশংসনীয়। তবে মঙ্গলবার সেনাপ্রধানের দেওয়া বক্তব্য থেকে বোঝা যাচ্ছে যে তারা একটি রাজনৈতিক দল গঠন করতে যাচ্ছেন। এখন অন্যান্য দলকে রাজনীতি করার সুযোগ দিয়ে নতুন দল গঠন করবেন, নাকি জর”রি অবস্থা বিদ্যমান রেখে দল গঠন করবেন তা স্পষ্ট নয়। নুর”ল ইসলাম বলেন, গণতন্ত্রে নতুন যে ধারণার কথা সেনাপ্রধান বলেছেন তা রাষ্ট্রবিজ্ঞানের কোনো বইয়ে আমি পাইনি।
যোগাযোগ উপদেষ্টা এম এ মতিন : সেনাবাহিনী প্রধান লে. জেনারেল মঈন ইউ আহমেদের গত সোমবার বাংলাদেশ রাষ্ট্রবিজ্ঞান সমিতির আয়োজিত সেমিনারে দেওয়া রাজনৈতিক বক্তব্য দেশের স্বাথেই ছিল। বলেছেন যোগাযোগ উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব) এম এ মতিন। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ের দপ্তরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। দেশে জরুরি আইন চলাকালীন সেনাবাহিনী প্রধান বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক বক্তব্য দিচ্ছেন। তার এই বক্তব্য জরুরি আইনের পরিপন্থী কিনা সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে যোগাযোগ উপদেষ্টা এম এ মতিন বলেন, তিনি (সেনাপ্রধান) দেশের স্বার্থেই এ কথা বলেছেন, এটা পরিপন্থী হবে কেন?
সেনাপ্রধান সেমিনারে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে ক্ষমতার ভারসাম্য আনয়নের কথা বলেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে যোগাযোগ উপদেষ্টা বলেন, এ ব্যাপারে আমি কিছু বলবো না। সেনাপ্রধান সরকারের পার্ট হিসেবে বক্তব্যে দিচ্ছেন কিনা এ প্রসঙ্গে উপদেষ্টা মতিন বলেন, এক্ষেত্রেও আমি কোনো মন্তব্য করবো না।

সৈয়দ জাফর সাজ্জাদ : জাসদ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জাফর সাজ্জাদ এ প্রসঙ্গে বলেন, সেনাপ্রধান ভালো কথাই বলেছেন। তবে তা কীভাবে বাস্তবায়ন হয় সেটাই হচ্ছে বিবেচ্য। আর সেনাপ্রধান যা বলেছেন সেটা তার নিজস্ব অভিমত। এক্ষেত্রে রাজনীতিক, বুদ্ধিজীবীসহ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে মতবিনিময়ের অবকাশ রয়েছে।

জি এম কাদের : জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদের বলেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য করার যে কথা সেনাপ্রধান বলেছেন সেটি ভালো প্রস্তাব বলে আমি মনে করি। আমার জানা মতে, বাংলাদেশের মতো পৃথিবীর আর কোথাও রাষ্ট্রপতির এতো কম ক্ষমতা নেই। আর জনগণ নতুন রাজনৈতিক দল চান না পুরোনো রাজনৈতিক দলকে চান সেই জন্য আমাদের নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে নতুন দল গঠনের ব্যাপারে কোনো বাধ্যবাধকতা আমাদের দেশে নেই। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বাদে যে কেউই নতুন দল গঠন করতে পারে।

মাহী বি চৌধুরী : সেনাপ্রধানের বক্তৃতার বহুলাংশের সঙ্গে একমত পোষণ করে এলডিপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহী বি চৌধুরী বলেছেন, তার বক্তৃতার সঙ্গে আমাদের দলীয় দর্শনের অনেক মিল রয়েছে। কেননা আমরাও প্রচলিত নীতিহীন রাজনীতি ও পরিবারতন্ত্রের পরিবর্তে বিকল্প জনকল্যাণমুখী রাজনীতির কথা বলে আসছি। তথাকথিত রাজনীতি যেখানে ব্যর্থ সেখানে সঙ্গত কারণেই নতুন ও সচল রাজনীতির কথা আজ আমাদের ভাবতে হচ্ছে। আমরাও চাই সত্যিকার অর্থে এগিয়ে যাওয়ার রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করতে। তবে ঘরোয়া রাজনীতি নিষিদ্ধ থাকায় এ বিষয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হয়নি বলে মাহী বি চৌধুরী জানান।

আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ : জামাতের সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ বলেন, সেনাবাহিনী প্রধানের বক্তব্য নিয়ে আমি পড়াশুনা করছি। এখন এ ব্যাপারে কিছু বলবো না। আগে পড়াশুনা শেষ করি, তার পর এ বিষয়ে মন্তব্য করবো। Source:ভোরের কাগজ
Date:2007-04-04

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: