প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে সংসদে আসন বণ্টন হওয়া উচিত

সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক) আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে আলোচকগণ বলেছেন, সাধারণ নির্বাচনে বিভিন্ন দলের প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে জাতীয় সংসদের আসন দলগুলোর মধ্যে বণ্টন হওয়া উচিত। প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে জাতীয় বাজেট থেকে দলগুলোর জন্য অর্থ বরাদ্দ করা হলে দলীয় রাজনীতিতে কালো টাকার প্রভাব কমবে। বর্তমান সরকার সংস্কারের নামে অনেক ভাঙচুর এবং উচ্ছেদ করেছে, এখন তাদের পুনর্গঠনের উদ্যোগ নিতে হবে। রাজনীতি না করলে বেশি চাঁদা দিতে হয় তাই ব্যবসায়ীরা রাজনীতিতে আসছেন।
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে প্রফেসর মোজাফফর আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এম হাফিজ উদ্দিন খান, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুর রাজ্জাক, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিএম কাদের, ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ড. আবদুর রাজ্জাক, অধ্যাপক ড. তোফায়েল আহমেমদ, সাবেক মন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলাম, সৈয়দ আবুল মকছুদ, সাবেক সচিব কাজী আজাহার আলী, রফিকুল ইসলাম সরকার, গ্রুপ থিয়েটারের সভাপতি ম হামিদ, অধ্যাপিকা হান্নানা বেগম প্রমুখ। বৈঠকে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন বিচারপতি এবাদুল হক। সুজন’র সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার বৈঠকে মূল প্রবনধ উপস্থাপন করেন।
হাফিজউদ্দিন খান বলেন, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থা থেকে সংসদ সদস্যদের সম্পর্ক ছেদ করা জরুরি। সংসদ সদস্যদের দায়িত্ব আইন প্রণয়ন করা এবং আইনের যথাযথ ও পরিপূর্ণ বাস্তবায়নে সতর্কদৃষ্টি রাখা। স্থানীয় উন্নয়নের দায়িত্ব স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর, যা নিশ্চিত করতে আইনের পরিবর্তন প্রয়োজন হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
আবদুর রাজ্জাক বলেন, সাধারণ নির্বাচনে বিভিন্ন দলের প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে জাতীয় সংসদের সদস্য পদ দলগুলোর মধ্যে বণ্টন হওয়া উচিত। প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে দলগুলোর জন্য জাতীয় বাজেট থেকে অর্থ বরাদ্দ করা হলে দলীয় রাজনীতিতে কালো টাকার প্রভাব কমবে। স্থানীয় সরকারের ভিত মজবুত না হলে গণতন্ত্রের ভিত মজবুত হবে না। সবাই জানে, সংসদ সদস্যদের কাজ আইন প্রণয়ন করা। তারপরও এই জনপ্রতিনিধিরা যেখানেই যান জনগণ তাদের কাছে রাস্তা চায়, বিদ্যুৎ চায়, উন্নয়ন চায়। তাই এসব জন চাহিদা বিবেচনায় রেখেই সংসদ সদস্যদের কর্ম পরিধি নির্ধারণ করা উচিত। বিকল্প চিন্তা করার এই সময় প্রাপ্ত ভোটের ভিত্তিতে জাতীয় সংসদের সদস্য পদ দলগুলোর মধ্যে বণ্টনের বিষয়ে ভাবতে হবে।
জিএম কাদের বলেন, জনগণের মতামত সঠিকভাবে প্রতিফলিত করতে হলে স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করতে হবে। ১৯৯১ সালের পর ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ হয়নি বরং পুরোমাত্রায় কেন্দ্রীকরণ হয়েছে। এসব করা হয়েছে দুর্নীতি দমন করার জন্য, সরকারি দলের সংসদ সদস্যদের সুযোগ বাড়ানোর জন্য। স্থানীয় সরকারের বিকল্প নেই। সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদের সংশোধন করতে হবে।
ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের সম্পদ কেন্দ্রের অধীনে নিয়ে থোক বরাদ্দ দেয়া ঠিক হয়নি। রাজনীতিকদের চেয়ে আমলাদের ক্ষমতা বেশি। স্থানীয় সরকারকে কার্যকর না করায় আজ রাজনীতিকরা রিলিফের টিনের ফাঁদে পড়েছেন। দেশবাসীকে মনে রাখতে হবে, বিদ্যমান কাঠামোর সামরিক সরকারের মাধ্যমে জাতীয় মুক্তি অর্জন সম্ভব নয়।
আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, রাজনীতিকদের সামাজিক সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে। কিন্তু রাজনীতিকরা যেখানেই যান সেখানে বিভিন্নজন নানারকম অনুদানের আব্দার করে। তাই কালো টাকার মালিক ছাড়া রাজনীতি করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে।
ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, সকল ক্ষমতা প্রধানমন্ত্রীর দফতরে কুক্ষিগত করা হচ্ছে। গ্রামসরকার, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও জেলা পরিষদ এই চারটি স্তরের মাধ্যমে কাজ করা জটিল। তাই স্থানীয় সরকার কাঠামো থেকে গ্রাম সরকার ও জেলা পরিষদ বাদ দিতে হবে। ইউনিয়ন পরিষদ গ্রামের হাটবাজারে ট্যাক্স বাড়ালে ভোট কমে যায়। তাই এ বিষয়গুলো কেন্দ্রের অধীনে রেখে ইউপি কে থোক বরাদ্দ দেয়া উচিত।
ড. তোফায়েল আহমেমদ বলেন, এখন স্থানীয় সরকার নিয়ে হৈ চৈ করা ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। ডোনাররা স্থানীয় সরকারকে ডোনেশন দিয়ে কেন্দ্র দুর্বল করতে চায়। ডোনেশনের ভাগ পেতেই এনজিওগুলো এখন রিসার্চে মেতেছে।
বিচারপতি কাজী এবাদুল হক গোলটেবিল আলোচনায় গৃহীত সিদ্ধান্তগুলোকে জনগণের প্রত্যাশা হিসেবে চিহ্নিত করে বলেন, এগুলো সরকারের সামনে তুলে ধরার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে কার্যকরী করা এবং ক্ষমতার ভারসাম্য সৃষ্টির জন্য জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নির্বাচন হওয়া প্রয়োজন। স্থানীয় সরকারকে ক্ষমতা প্রদানের মধ্য দিয়ে এই ভারসাম্য রক্ষা করা সহজ হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেনরি। Source:দৈনিক নয়া দিগন্ত
Date:2007-04-11

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: