প্রি-পেইড ল্যান্ড ফোন শিগগিরই চালু করছে বিটিটিবি জনপ্রিয় হয়নি কলিং কার্ড

প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে শিগগিরই প্রি-পেইড ল্যান্ড ফোন নিয়ে আসছে বাংলাদেশ ডাক ও টেলিফোন বোর্ড (বিটিটিবি)। আগামী তিন মাসের মধ্যেই গ্রাহকরা এই সুবিধা পাবেন বলে আশা করছে বিটিটিবি কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে টোল ফ্রি ফোনও চালু করা হচ্ছে। বিটিটিবি সূত্র জানিয়েছে, জুলাইয়ে উদ্বোধন হওয়া বিটিটিবি’র কলিং কার্ডের সঙ্গেই প্রি-প্রেইড ফোন এবং টোল-ফ্রি ফোন চালু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তৎকালীন টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হকের আগ্রহের কারণেই তড়িঘড়ি করে প্রি-পেইড কলিং কার্ডের কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। প্রি-পেইড কার্ড চালু হওয়ার পর নয় মাস পেরিয়ে গেলেও তা গ্রাহকদের কাছে জনপ্রিয় হয়নি। অধিকাংশ গ্রাহক বিটিটিবি’র প্রি-পেইড কলিং কার্ড সম্পর্কে কিছুই জানে না।

সূত্র জানিয়েছে, বিটিটিবি চাইলে এখনই প্রি-পেইড ল্যান্ড ফোন প্রকল্পটি চালু করা যাবে। তবে এক্ষেত্রে দশ হাজারের বেশি গ্রাহককে এ সুযোগ দেয়া সম্ভব হবে না। ঢাকার যে কোন গ্রাহক চাইলেই যাতে এ সুবিধা দেয়া সম্ভব হয় সে জন্য বাজারে ছাড়ার আগে এ সংখ্যা অন্তত এক লাখ করতে চায় তারা। সূত্র জানায়, প্রি-পেইড ফোন চালু হলে মাসিক লাইন রেন্ট দিতে হবে না। তবে কল করার ক্ষেত্রে বর্তমান রেট এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা অপরিবর্তিত থাকবে বলেই জানিয়েছে সূত্র। সূত্র বলছে, যে কেউ চাইলেই তার ফোনে এই সুবিধা নিতে পারবেন।

অন্যদিকে টোল-ফ্রি টেলিফোনে নির্দিষ্ট একটি নম্বরে ফোন করলে গ্রাহককে কোন টাকা খরচ করতে হবে না। বরং যে ব্যক্তি ফোনটি রিসিভ করবে তার কাছ থেকেই বিলটি নেয়া হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই সুযোগ রয়েছে। টোল-ফ্রি কার্যক্রমই আগে বাজারে ছাড়া হচ্ছে। টোল-ফ্রি’র প্রকল্পটি বোর্ডের অনুমোদনের পর এখন টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

বিটিটিবি সূত্র বলছে, বিপণন কার্যক্রম সুষ্ঠু না হওয়ার কারণেই ল্যান্ড ফোনের প্রি-পেইড কলিং কার্ড গ্রাহকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ব্যর্থ হয়। তারা বলেন, এক দিকে ডিলারশিপ যেমন দেয়া হয়নি। তেমনি বিজ্ঞাপনও প্রচার করা হয়নি। সে কারণে নয় মাসে মাত্র কয়েক লাখ টাকার প্রি-পেইড কার্ড বিক্রি হয়েছে।

প্রি-পেইড কার্ড দিয়ে কম খরচে বিশ্বের ৫৫টি দেশে ফোন করার সুযোগ থাকলেও অসচেতনতার কারণে তা খুব একটা ব্যবহৃত হচ্ছে না। তবে এক্ষেত্রে চুক্তিবদ্ধ তিনটি ব্যাংক সিটি ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক এবং বেসিক ব্যাংককেও খানিকটা দায় দিচ্ছেন তারা। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-04-11

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: