আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার দেশে ফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের খবরটি গতকাল বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বড় বড় শিরোনামে ফলাও করে প্রকাশ করা হয়। বিবিসি অনলাইনে ব্রেকিং নিউজ হিসেবে খবরটি দেয়া হয়। শেখ হাসিনার ছবিসহ দেয়া খবরটির শিরোনাম ছিল- ‘বাংলাদেশ ব্লকস এক্স পিএম রিটার্ন’। এতে আরোপিত নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে সরকারি প্রেসনোট তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয়, তিনি দেশে ফিরলে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে। প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, বিগত সরকারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া বিদেশ যাওয়ার ব্যাপারে সরকারের সঙ্গে একটি সমঝোতা করেছেন বলে বিভিন্ন পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল হেরাল্ড ট্রিবিউন (আইএইচবি) এসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) সূত্র উল্লেখ করে খবরটি ছাপায়। ‘বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট সেইজ ফরমার লিডার্স রিটার্ন মে ইরোড ল এন্ড অর্ডার’- এই শিরোনামে খবরটি দেয়া হয়। এনডিটিভি অনলাইন বিশ্বের খবরে লিড আইটেম হিসেবে ‘বাংলা গভঃ ব্যানস হাসিনাস্‌ এন্ট্রি’ শিরোনামে খবরটি প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে শেখ হাসিনার ছবিও দেয়া হয়। এতে সরকারি প্রেসনোটের অংশবিশেষ তুলে দেয়া হয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের শিরোনাম- ‘বাংলাদেশ বারস রিটার্ন অব এক্স পিএম হাসিনা’। প্রতিবেদনে সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে বলা হয়, সামরিক বাহিনী সমর্থিত অন্তর্বর্তী সরকার সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশে ফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

স্যাটেলাইট টেলিভিশন আল জাজিরা ইংলিশ, ‘বাংলাদেশ এক্সাইল ফরমার পিএম’ শিরোনামে খবরটি প্রচার করে। প্রতিবেদনে সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বলা হয়, বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী সমর্থিত সরকার শেখ হাসিনার প্রত্যাবর্তনে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় যে, শেখ হাসিনার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিগত সরকারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকেও বিদেশে যাওয়ার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছিল। খালেদা জিয়া বিদেশে যেতে রাজি হয়েছেন বলে খবর বেরুনোর একদিন পরই শেখ হাসিনার দেশে ফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হল।

বার্তা সংস্থা এএফপির শিরোনাম- ‘বাংলাদেশ অপজিশন চিফ শেখ হাসিনা এক্সাইলড’। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী সমর্থিত ‘ইমারজেন্সি গভর্নমেন্ট’ বুধবার শেখ হাসিনাকেও নির্বাসনে দিয়েছে। বিগত সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বেগম খালেদা জিয়াকে তল্পিতল্পাসহ সৌদি আরবে চলে যেতে বলা হয়েছে বলে খবর বেরুনোর একদিন পরই সরকার এ সিদ্ধান্ত নিল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শেখ হাসিনার স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের ব্যাপারে নিরাপত্তাজনিত বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিমানবন্দর, স্থলবন্দর, বাংলাদেশে ফ্লাইট পরিচালনাকারী এয়ারলাইনস এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিভাগ ও সংস্থাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সতর্ক রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে সরকারের তিনজন পদস্থ কর্মকর্তা বলেন, সরকারি বিবৃতি থেকে এটা পরিষ্কার যে, আমেরিকা সফররত শেখ হাসিনাকে দেশে আসতে দেয়া হবে না। এমনকি ঢাকামুখী কোন বিমানেও উঠতে দেয়া হবে না।

প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার (পিটিআই) শিরোনাম ছিল ‘গভর্নমেন্ট টেকস টেম্পরারি স্টেপ টু রেসট্রিক হাসিনা’স রিটার্ন’। প্রতিবেদনে বলা হয়, সামরিক বাহিনী সমর্থিত অন্তর্বর্তী সরকার শেখ হাসিনার আমেরিকা থেকে দেশে ফেরার ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ায় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়। বলা হয়, তিনি দেশে ফিরে আবারও ওই ধরনের বক্তব্যদান অব্যাহত রাখতে পারেন। এতে দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে। পিটিআই’র সূত্র উল্লেখ করে, আউটলুক ইন্ডিয়া ডটকমও প্রতিবেদনটি ছাপায়। প্রতিবেদনে প্রেসনোটটির বক্তব্য পুরোপুরি তুলে ধরা হয়। Source:দৈনিক যুগান্তর
Date:2007-04-19

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: