আরও অনেক বড় মাপের দুর্নীতিবাজকে ধরা হবে

আরও অনেক বড় মাপের দুর্নীতিবাজকে ধরা হবে। এছাড়া বড় মাপের কর্পোরেট দুর্নীতির তদন্ত ও অব্যাহত থাকবে। গুরুতর অপরাধ দমন সংক্রান্ত জাতীয় সমন্বয় কমিটির বৈঠক শেষে কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ও নবম পদাতিক ডিভিশনের অধিনায়ক মেজর জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। তিনি জানান, বড় ধরনের দুনর্ীতির ঘটনা তদন-ের জন্য টাস্কফোর্সের তদন- সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণও দেয়া হবে। বুধবার দুদক কার্যালয়ে সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে তিনি দুনর্ীতির তদন- বিষয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। দুনর্ীতিবিরোধী অভিযানে সমন্বয়ের ঘাটতি রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ সংক্রান- যাবতীয় সমস্যা সমাধানের কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।
দুদক চেয়ারম্যান লে. জেনারেল (অব.) হাসান মশহুদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমন্বয় বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন পুলিশের আইজি নূর মোহাম্মদ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইমাম মজুমদারসহ আইন মন্ত্রণালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের পদস্থ কর্মকর্তারা। বৈঠক শেষে দুদক চেয়ারম্যান হাসান মশহুদ চৌধুরী সাংবাদিকদের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে কোন কথা বলেননি। নবম পদাতিক ডিভিশনের অধিনায়ক মেজর জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে সমন্বয় প্রয়োজন, আরও ভালো আন্ডারস্ট্যান্ডিংয়ের প্রয়োজন। এসব বিষয় নিয়েই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেন, দুদকে জনবলের ঘাটতি রয়েছে। এই ঘাটতি পূরণ করার জন্য অন্য সংস্থা থেকে ডেপুটেশনে লোক আনার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এছাড়া আইনজীবী নিয়োগের ব্যাপারেও আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেন, টাস্কফোর্সের কার্যপ্রণালী সম্পর্কে তিনি দুদককে মোটামুটি ধারণা দিয়েছেন।
বৈঠকে কি কি সিদ্ধান- হয়েছে জানতে চাইলে জেনারেল মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমাদের অনেকেরই এসব কাজে অভিজ্ঞতা নেই। যারা মামলাগুলো তদন- করছেন তাদের অভিজ্ঞতার কিছুটা ঘাটতি রয়েছে। সে জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণের ব্যাপারে সিদ্ধান- নেয়া হয়েছে। এনবিআরের মামলার ক্ষেত্রেও অভিজ্ঞতার অভাব রয়েছে। জেনারেল মাসুদ জানান, টাস্কফোর্সে সেনাবাহিনী, বিমান বাহিনী ও নৌবাহিনীর যেসব সদস্য রয়েছেন তাদেরও এ ধরনের তদন-ের অভিজ্ঞতা নেই। এজন্যই এ কাজে গতি আসছে না।
চলমান দুনর্ীতিবিরোধী অভিযান ও দুনর্ীতি তদন- প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যেসব ব্যক্তির বিষয়ে তদন- হচ্ছে এরা সবাই বড় মাপের। এদের অনেকেরই কর্পোরেট দুনর্ীতি রয়েছে। এ ব্যাপারে সত্যিকার অর্থে আমাদের কোন ডিপার্টমেন্টেরই তেমন অভিজ্ঞতা নেই। তবে এ সমস্যা থাকবে না বলে তিনি জানান। যেসব বড় মাপের দুনর্ীতিবাজদের ব্যাপারে তদন- চলছে, আগামীতে সে ধরনের আরও বড় মাপের দুনর্ীতিবাজরা তদন-ের আওতায় আসবে বলে তিনি জানান।
গুরুতর অপরাধ দমন সংক্রান- জাতীয় সমন্বয় কমিটি পৃথক কোন তদন- সংস্থা হচ্ছে কিনা_ এ প্রশ্নের জবাবে জেনারেল মাসুদ বলেন, এটা কোন আইনি সংস্থা নয়, একটি নির্বাহী কমিটি, দুনর্ীতি দমন কমিশন এবং এনবিআরকে সহায়তার জন্য এটা করা হয়েছে। তিনি বলেন, জরুরি বিধিমালায় যেসব অপরাধ আনা হয়েছে এবং এসব অপরাধের বিষয়ে যারা আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবে সে ধরনের সংস্থাগুলোকে সাহায্যের জন্য এই সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।
সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে জেনারেল মাসুদ বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়েছিল। যাদের ইতিপূর্বে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের জবানবন্দিতে কোকোর নাম এসেছে। সে ব্যাপারেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে আমি জানি।

সূত্রঃ http://jugantor.com/online/news.php?id=60010&sys=1

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: