খালেদা জিয়া কি গৃহবন্দি

বিএনপি চেয়ারপার্সন এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দী বা আটক রাখা হয়েছে কিনা, বিষয়টি পরিষ্কার করে রবিবার আদালতকে জানানোর জন্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। এছাড়া আগামী রবিবার পর্যন্ত যেন খালেদা জিয়া স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারেন তা নিশ্চিত করে ব্যবস’া নেয়ার কথা সরকারকে জানাতে অ্যাটর্নি জেনারেলকে বলা হয়েছে। ঐদিন পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার বিচারপতি মোঃ আবদুল ওয়াহাব মিঞা এবং বিচারপতি মোঃ এমদাদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ মৌখিকভাবে সরকারকে এ নির্দেশ দেয়।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দী করে রাখা চ্যালেঞ্জ করে এবং তার ই”ছার বিরুদ্ধে তাকে বিদেশে পাঠান থেকে বিরত থাকতে সরকারকে নির্দেশ দেয়ার জন্য হাইকোর্টে আবেদন করার পর আদালত এ নির্দেশ দেন।

বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং টাঙ্গাইলের অধিবাসী বাবুল চৌধুরী ফৌজদারি কার্যবিধি ৪৯১ ধারায় এক হেবিয়াস কর্পাস দায়ের করেন। দায়েরকৃত আবেদনের বিষয়বস’ এডভোকেট আজিজুল হক আদালতে উত্থাপন করেন। এরপর আবেদনকারীর পক্ষে এডভোকেট মোঃ রফিকুল ইসলাম মিঞা আবেদনের বিষয়বস’ উল্লেখ করে আদালতকে বলেন, খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে। তাকে ঘর থেকে বের হতে দেওয়া হ”েছ না। টেলিফোন সংযোগ বি”িছন্ন করে দেওয়া হয়েছে। স্বাধীনতা দিবসে তিনি তার স্বামীর কবর জিয়ারত করতে পারেননি।

তিনি আদালতকে বলেন, সরকারের নির্ধারিত চারজন ব্যক্তি ছাড়া অন্য কোন আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে তাকে সাক্ষাৎ করতে দেয়া হ”েছ না। সরকারের বক্তব্য অনুযায়ী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কোন মামলা নেই। তিনি তিনবার এদেশের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এ সবই করা হ”েছ তার ওপর চাপ প্রয়োগ করে তাকে দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য। সাম্প্রতিককালে পত্র-পত্রিকায় বিষয়গুলো প্রকাশিত হয়েছে।

এসময় আদালত বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর যে চিত্র তুলে ধরা হয়েছে তা উদ্বেগের বিষয়। এসব বিষয় বিবেচনা করে আদালত উদ্বিগ্ন। আদালতের এই উদ্বেগের কথা সরকারকে জানানোর জন্য অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেলকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

‘তিনি মুক্ত আছেন’

রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এডভোকেট সালাউদ্দিন আহমেদ এসময় আদালতকে বলেন, আমি যতদূর জানি খালেদা জিয়াকে আটক বা গৃহবন্দি করে রাখা হয়নি। তিনি মুক্ত আছেন, তবে আমরা অবাক হয়েছি তার বড় ছেলে তারেক রহমানকে এখনো দেখতে না যাওয়ায়।

এরপর আদালত বলেন, একজন সাধারণ নাগরিকের স্বাধীনভাবে চলাফেরা করার অধিকার রয়েছে। একজন নাগরিকের চলাফেরার ওপর বিধি-নিষেধ আরোপ করা যাবে না এটা আইনগত ও সাংবিধানিক অধিকার। এসব দেখার অধিকার আদালতের রয়েছে। এরপর আদালতের বক্তব্য যত দ্রুত সম্ভব সরকারকে জানানো হবে বলে আদালতকে আশ্বস্ত করেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এডভোকেট সালাউদ্দিন আহমেদ। দায়েরকৃত আবেদনে খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির করার নির্দেশ চাওয়া হয়েছে। কারণ সরকারকে দেখাতে হবে যে, তাকে জোর করে আটক রাখা হয়নি। একই সঙ্গে খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দি অবস’া থেকে মুক্ত ও জোর করে বিদেশে না পাঠানোর জন্য সরকারের প্রতি রুল জারি করতে আবেদন করা হয়। বাবুল চৌধুরীর দায়েরকৃত হেবিয়াস কর্পাসে স্বরাষ্ট্র সচিব, প্রতিরক্ষা সচিব, জেলা প্রশাসক, র‌্যাবের মহাপরিচালক, পুলিশ কমিশনার ঢাকা এবং যৌথ বাহিনীকে বিবাদী করা হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষে আরো উপসি’ত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এডভোকেট আব্দুর রউফ এবং এডভোকেট আব্দুল বাছেত।

জানা যায়, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে পরিবারের কোন সদস্য বা ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজন এই হেবিয়াস কর্পাস দায়ের করেনি। এছাড়া জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কোন সিনিয়র আইনজীবী এই আবেদনকারীর পক্ষে আদালতে শুনানিতে অংশ নেননি।

তারেকের সাথে খালেদা জিয়ার সাক্ষাতের বিষয়টি অনুমোদন করেছে সরকার

সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠপুত্র তারেক রহমানের সাথে তার সাক্ষাতের বিষয়টি অনুমোদন করেছে সরকার। আজ-কালের মধ্যে যে কোন সময়ই জেলের বাইরে তৃতীয় কোন স’ানে তাদের দেখা হবে। এই দফায় মা বেগম খালেদা জিয়ার সাথে তারেক রহমানের স্ত্রী জোবাইদা রহমান, মেয়ে জায়মা রহমান এবং ছোট ভাই আরাফাত রহমানও তারেক রহমানের সাথে দেখা করার সুযোগ পাবেন।

গত বুধবার তারেক রহমানের সাথে দেখা করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানানো হয়। কারা কর্তৃপক্ষ আবেদনটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠিয়ে দিলে সরকারের পক্ষ থেকে তা অনুমোদন করা হয়। তবে কখন, কোথায় এবং কিভাবে তাদের সাক্ষাৎ হবে সে বিষয়টি নিশ্চিত হয়নি।

এর আগে বুধবার তারেক রহমানের স্ত্রী জোবাইদা রহমান এবং তার শাশুড়ী বন্দী তারেকের সঙ্গে দেখা করেন।
Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-04-20

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: