গুলশানে প্রকাশ্যে ঠিকাদার হত্যা

রাজধানীর গুলশানে গতকাল শনিবার প্রকাশ্যে ঠিকাদার মোহাম্মদ মজিবুর রহমানকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এছাড়া কোতোয়ালিতে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

প্রত্যৰদর্শী ও হসপিটাল সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শাহজাদপুর বাজার সংলগ্ন ইউনিক মেটালম্যান পাওয়ার অফিসের পাশে দুটি মোটরসাইকেলযোগে চার সন্ত্রাসী এসে ঠিকাদার মোহাম্মদ মজিবুর রহমানকে (৪৫) পথরোধ করে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছয় রাউন্ড গুলি করে। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা ফাকা গুলি করে পালিয়ে যায়। মজিবুর রহমানকে সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় ঢাকা মেডিকাল কলেজ হসপিটালের জরম্নরি বিভাগে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের স্ত্রী শিরিন রহমান কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, সকাল ৯টার দিকে কে বা কারা মজিবুর রহমানের মোবাইলে ফোন করলে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। কথা বলার কিছুৰণ পর তিনি বাসা থেকে বের হন। ২০০৩ সালের শেষ দিকে মজিবুরের ছোট ভাই মতিউর রহমানকে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সন্ত্রাসী নুরম্ন, কাশেম, কাজলসহ পাচজনের বিরম্নদ্ধে থানায় মামলা করার পর মজিবুরকে প্রায়ই সন্ত্রাসীরা হুমকি দিয়ে আসছিল। কিছুদিন আগে মামলা প্রত্যাহার করতে সন্ত্রাসী নুরম্ন মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়েছিল।

নিহত মজিবুর রহমান গুলশানের জাহিদ ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেডের এমডি। তাছাড়া নুরানী ট্রাভেল এজেন্সির সঙ্গেও তিনি জড়িত ছিলেন। গুলশান ২ নাম্বারে একটি ফাইভ স্টার হোটেলের জানালার গৃলের মাল সাপস্নাই দিতেন ঠিকাদার মজিবুর রহমান। পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, ঘাতক দলের সদস্যদের ধরতে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে।

ঠিকাদার মজিবুর রহমানের বাবার নাম মোজাফর হোসেন। বাসা শাহজাদপুর বউবাজার। গ্রামের বাড়ি নবাবগঞ্জের নয়াকান্দা এলাকায়। তার তিন মেয়ে দুই ছেলে রয়েছে। তিন ভাই চার বোনের মধ্যে তিনি বড়।

এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু

শুক্রবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে পুরনো ঢাকার আরমানিটোলা পাকিসত্দান মাঠের গ্যালারি থেকে ইসমাইল হোসেন (৪৩) নামে এক ব্যক্তিকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকাল কলেজ হসপিটালে ভর্তি করে পুলিশ। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকাল সাড়ে ৭টায় তিনি মারা যান। তার মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

নিহতের ভাই জামাল জানান, শুক্রবার সকালে ইসমাইল বাসা থেকে বের হয়। তার সঙ্গে কারো শত্রম্নতা নেই। মাঝে মধ্যে তিনি মদ পান করতেন। তার বাবার নাম মাওলানা আম্বর আলী। বাসা ৪ নাম্বার খিলগাও চৌধুরীপাড়া।

পুলিশ জানায়, ময়নাতদনত্দের রিপোর্ট পাওয়ার পর বোঝা যাবে ইসমাইল হোসেন কিভাবে মারা গেছেন। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/details.php?nid=6979

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: