এখন দেশে ফেরার নিষেধাজ্ঞাও উইথড্র করতে হবে গ্রেফতারি পরোয়ানা স্থগিতের পর বিবিসিকে শেখ হাসিনার্

গ্রেফতারি পরোয়ানা স্থগিত হওয়াকে শেখ হাসিনা জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন হিসেবে আখ্যায়িত করলেন। গতকাল লন্ডনে বিবিসিকে দেয়া এক সাৰাৎকারে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এ কথা বলেন।
শেখ হাসিনা এখন বৃটেনে অবস্থান করছেন। দেশে ফেরার ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় গতকাল তাকে ইংল্যান্ডের হিথরো এয়ারপোর্টে আটকে দেয়া হয়। সেখানে বসেই তিনি সরকারের বিভিন্ন সিদ্ধানত্দের সমালোচনা করে রবিবার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে বক্তব্য দেন। আর গতকাল সোমবার বাংলাদেশের আদালত তার বিরম্নদ্ধে আনীত গ্রেফতারি পরোয়ানা স্থগিত করার আদেশ জারি করলে তিনি এর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বিবিসিকে বলেন, আমি তো মনে করি এটা জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন। একই সরকার আমার বিরম্নদ্ধে মামলাও দেয়, আবার একই সরকার আমাকে দেশেও যেতে দেয় না। এটা তো সম্পূর্ণভাবে আমি মনে করি মানবাধিকার লঙ্ঘন। যারা এ পরোয়ানা উইথড্র করেছেন, এখন আমার ওপর থেকে দেশে ফেরার নিষেধাজ্ঞাও তাদের উইথড্র করে নিতে হবে।

সরকারের এ ধরনের সিদ্ধানত্দের পেছনে কি কারণ হতে পারে জানতে চাইলে শেখ হাসিনা বলেন, এটা সরকারের কাছে আপনারা জিজ্ঞাসা করম্নন। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করবে, আবার দেশেও ফিরতে দেবে না। এ ধরনের স্ববিরোধী কাজেই প্রমাণ হচ্ছে, এ পরোয়ানা আসলে ভুয়া। এটা যে একটা মিথ্যা কেস, তা সরকার প্রমাণ করে দিয়েছে।

গ্রেফতারি পরোয়ানা স্থগিত হওয়ার পর এখন কি করণীয়_ এর জবাবে আওয়ামী লীগ নেত্রী বলেন, আমি এখন লন্ডনে আছি। আমি আমার দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। তবে আপনাদের মাধ্যমে আমার দেশের জনগণের কাছে আবেদন, আমার ওপর কেন এ ধরনের জুলুম করা হলো আমি তার প্রতিকার চাই এবং আমি বাংলাদেশে ফেরত যেতে চাই। অবিলম্বে আমার ওপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে তা যেন সরকার প্রত্যাহার করে, সে জন্য আমি জনগণের সহযোগিতা চাই।

এর মধ্যে ঢাকায় সরকারের কারো সঙ্গে তার কোনো কথাবার্তা হয়নি বলে তিনি জানিয়েছেন।

বৃটিশ সরকারের সঙ্গে এখনো কথা না হলেও তিনি বলেন, গত ২২ এপৃলে দেয়া বিবিসির সাৰাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন, বৃটেন সরকার ও ইওরোপিয়ান ইউনিয়ন তার কাজে সমর্থন জানিয়েছে।

তার বিরম্নদ্ধে আনীত অভিযোগের বিপৰে তিনি কোনো আইনগত ও রাজনৈতিক ব্যবস্থা নিচ্ছেন কি না এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমার দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আমার যোগাযোগ হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে। দলের অ্যাক্টিং প্রেসিডেন্ট জিলস্নুর রহমানের সঙ্গে আমার ফোনে কথা হয়েছে। আমি আইনগত ও রাজনৈতিক_ সবরকমভাবে এর মোকাবেলা করবো। তাদের কোনো অধিকার নেই আমাকে দেশের বাইরে সরিয়ে রাখার। আমি কোনো অন্যায় করিনি যে তাদের মামলার ভয়ে ভীত হবো। আমি জনগণের জন্য যে কোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত হয়েই দেশে ফিরবো।

সূত্রঃ http://www.jaijaidin.com/details.php?nid=7267

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: