হাসিনা খালেদা শীর্ষপদে থাকবেন কিনা সে সিদ্ধান্ত দলের নেতাকর্মীরাই নেবেন

শেখ হাসিনা এবং বেগম খালেদা জিয়া যথাক্রমে আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি’র শীর্ষ পদ ধরে রাখবেন কিনা তা দলের নেতা-কর্মীরাই সিদ্ধান্ত নেবেন বলে মনোভাব প্রকাশ করেছে দুই দলের নেতারা। উভয় দলই সংস্কারের পক্ষে মনোভাব ব্যক্ত করেছে। শনিবার রাজধানীর চীন মৈত্রী সম্মেলন কেন্দ্রে বিবিসি’র বাংলাদেশ সংলাপে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) এএসএম হান্নান শাহ এবং আওয়ামী লীগ প্রচার সম্পাদক আসাদুজ্জামান নুর এই বিষয়ে কথা বলেন। বর্তমানের বহুল আলোচিত ‘মাইনাস-টু’ পরিকল্পনা সম্পর্কে তারা নিজ নিজ দলের পক্ষে অভিমত ব্যক্ত করেন।

সংলাপে বক্তারা বলেন, দলে ব্যক্তি পরিবর্তনের চেয়ে সিস্টেম সংস্কারের গুরুত্ব বেশি। হাসিনা কিংবা খালেদাকে দলের শীর্ষ পদে রেখে সংস্কার কতটুকু সফলতা পাবে এ প্রশ্নের জবাবে হান্নান শাহ বলেন, আমি মনে করি দলে কোনো প্রকার সংস্কার আনার আগে দলের নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে তাদের মতামত নেওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, বিএনপিতে কোনো সংস্কার করতে হলে খালেদা জিয়াকে একচ্ছত্র নেতৃত্বে রেখেই করতে হবে, তাকে বাদ দিয়ে দলের পুনর্গঠন বা সংস্কারের চিন্তা কেউই করতে পারবে না।

আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান নূর বলেন, অবশ্যই আমরা দলে কিছু সংস্কার বাস্তবায়ন করতে চাই। সে লক্ষ্যেই আমরা গত দুই মাস আগে থেকে নিজেদের মধ্যে আলোচনা শুরু করেছিলাম। কিন্তু ঘরোয়া রাজনীতি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আমরা বেশিদূর এগোতে পারিনি। আওয়ামী লীগে কোনো প্রকার সংস্কার শেখ হাসিনার উপস্থিতিতেই হতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন। ‘তিনি দলের নেতাকর্মীদের কথা শুনবেন এবং তদনুযায়ী সংস্কার বাস্তবায়ন হবে যদি প্রয়োজন পড়ে’ আসাদুজ্জামান অনুষ্ঠানে বলেন।

হান্নান শাহ আরো বলেন, এখন অনেকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে দুই নেত্রীর বিরুদ্ধে কথা বলছেন। কিন্তু তাদেরকে কেন টার্গেট করা হচ্ছে তা আমার বোধগম্য হচ্ছে না। তারা দলের নেতৃত্বে থাকবেন কিনা তা ঠিক করার দায়িত্ব শুধুই দলের।

অপরদিকে আসাদুজ্জামান নূর বলেন, হাসিনা উত্তরাধিকারসূত্রে দলের শীর্ষ পদ দখল করেছেন এই দাবি সঠিক নয়। তিনি যখন দেশের বাইরে ছিলেন তখন আওয়ামী লীগ কাউন্সিলই তাকে দলের প্রধান নির্বাচিত করে। এটাকে যদি আপনি পরিবারতন্ত্র বলেন তবে ভুল করবেন। তিনি বলেন রাজনীতির সুযোগ নিয়ে যারা দুর্নীতি করেন তারা রাজনীতিবিদ হতে পারেন না।

বিবিসি বাংলা সার্ভিসের মাসুদ হাসান খান অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-04-29

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: