বিএনপিতে নানামুখ নানামত মহাসচিব মুখ খুলেননি

সংস্কার প্রশ্নে বিএনপিতে মতবিরোধ বাড়ছে। সৃষ্টি হচ্ছে নানা মত ও বিতর্কের। দলের একটি অংশ জোরালো ভাষায় পরিবারতন্ত্র ও এককেন্দ্রিক নেতৃত্বের অবসানের তাগিদ দিচ্ছেন। তবে অপর অংশটি মনে করছেন পরিবারতন্ত্র নিয়ে যে ধরনের কথা বলা হচ্ছে তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। খালেদা জিয়া ছাড়া বিএনপি হয় না। দলের সাধারণ নেতা-কর্মীদের মাঝেও লক্ষ্য করা যাচ্ছে দুই মত। সংস্কারের বিষয়ে অধিকাংশেরই দ্বিমত নেই। নেতাদের মধ্যে নানা জনের নানা কথায় বিভ্রান্ত সাধারণ কর্মীরা। আবার সময়ের পটভূমিতে এ সংস্কার অনিবার্য বলেও মনে করেন তারা। তবে ‘মাইনাস খালেদা তত্ত্ব’ নিয়ে যারা মাঠে নেমেছেন তাদের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক নেতা। লেঃ জেনারেল (অবঃ) মীর শওকতের মতই তারা মনে করেন খালেদা জিয়া মানেই বিএনপি, আর বিএনপি মানেই খালেদা জিয়া। এই সত্যকে অবজ্ঞা করতে চান না অনেকেই। এর বিপক্ষেও মত রয়েছে। তবে দলের মহাসচিব আবদুল মান্নান ভুঁইয়া কিছুই বলছেন না। তিনি একেবারেই নিশ্চুপ।

দলের বর্ষীয়ান নেতা সাইফুর রহমান, ড. ওসমান ফারুক ও ঢাকার মেয়র সাদেক হোসেন খোকা প্রায় অভিন্ন ভাষায় পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখার পর গতকাল একই মত পোষণ করে মুখ খোলেন সাবেক হুইপ আশরাফ হোসেন। তিনি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ এনেছেন। এই বক্তব্যকে খণ্ডন এবং বিরোধিতা করে মতামত দিয়েছেন দলের সহ-সভাপতি লেঃ জেনারেল (অবঃ) মীর শওকত, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) হান্নান শাহ এবং বিএনপি’র মুখপাত্র নজরুল ইসলাম খান।

আশরাফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চেয়ারপার্সনের যে ক্ষমতা তা সঠিকভাবে পালন না করাতে আজকে দলের এই পরিণতি। গঠনতন্ত্রে প্রাপ্ত ক্ষমতার অপব্যাবহার করেছেন খালেদা জিয়া। বিএনপি যে সময় গঠিত হয়েছিল সেই সময়ের প্রেক্ষাপট আর আজকের দিনের প্রেক্ষাপট এক নয়। সেই সময়ের প্রেক্ষাপটে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চেয়ারপার্সনকে অনেক ক্ষমতা দেয়া হয়েছিল। সেই ক্ষমতাবলে বিগত সময়ে তিনি তার আত্মীয়-স্বজনকে বিভিন্ন পদে সমাসীন করলে আমরা তার প্রতিবাদ করি। আজ আমরা আনন্দিত যে, দলের সিনিয়র কিছু নেতা পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে কথা বলছেন। আমি মনে করি, পরিবারতন্ত্র চেয়ারপার্সনের অসীম ক্ষমতা ও অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের আশ্রয়-প্রশ্রয়দান আজকের দুরবস্থার জন্য দায়ী।

লেঃ জেনারেল (অবঃ) মীর শওকত আলী বলেন, সংস্কার প্রশ্নে আমার কোন দ্বিমত নেই। আমিও চাই দলে সংস্কার। তবে যারা বলছেন মাইনাস খালেদা জিয়া, তাদের সঙ্গে আমি নেই। খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে কোন সংস্কার হবে না। খালেদা জিয়াকে সামনে রেখেই সংস্কার করতে হবে। মাইনাস খালেদা জিয়া মানে মাইনাস বিএনপি।

বিএনপি নেতা মীর শওকত আলী বর্তমানে যারা দল ও নেত্রীর সমালোচনা করছেন তাদের কড়া সমালোচনা করে সাংবাদিকদের বলেন, যারা সমালোচনা করছেন তারা ভুল করছেন। বিএনপি করবো আর খালেদা জিয়াকে নেত্রী মানবো না তা হয় না। খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে বিএনপি হয় না। তাকে নেত্রী মেনেই বিএনপিতে থাকতে হবে। অন্যথায় বিকল্প চিন্তা করা ভাল। মীর শওকত জামায়াতের সঙ্গে বিএনপি’র জোট গড়ার কড়া সমালোচনা করেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, রাজনীতিতে পরিবারতন্ত্র বড় কথা নয়। রাজনৈতিক পরিবারের সদস্য হওয়াটা অপরাধের নয়। রাজনৈতিক পরিবারের পরিচয়ে নয়, আপন যোগ্যতা ও দক্ষতা বিবেচনায় পদ-পদবী যে কেউ পেতেই পারেন। তবে কেবল নিজের পরিচয়েই কেউ পদ পাবেন সেটা যুক্তিসঙ্গত নয়। তিনি বলেন, পরিবারতন্ত্র নিয়ে যে দ্বন্দ্বের ইঙ্গিত দেয়া হচ্ছে তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

ব্রিগেডিয়ার (অবঃ) হান্নান শাহ যারা বর্তমানে নেত্রী ও দলকে নিয়ে ইচ্ছেমত বক্তব্য দিচ্ছেন তাদের সততা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তিনি সিনিয়র নেতা সাইফুর রহমানের বক্তব্য প্রসঙ্গে বলেন, তিনিওতো পরিবারতন্ত্র বজায় রেখেছেন। লালন করছেন। নিজের ছেলেকে এমপি বানিয়েছেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ কেএম হাসানকে প্রধান উপদেষ্টা করার ক্ষেত্রে আপত্তি করেছিল। আওয়ামী লীগ আপত্তি করলে জায়েজ আর বিএনপি করলে জায়েজ নয়। তবে মহাসচিব সম্পর্কে সাইফুরের বক্তব্যে সাধারণ মানুষের মতামত প্রতিফলিত হয়েছে। সাদেক হোসেন খোকার বক্তব্য খন্ডন করে হান্নান শাহ বলেন, খোকা আমার সম্পর্কে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন আর দেশবাসী খোকার ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করছে। হান্নান শাহ বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এমনকি ভারতেও বিচারপতিদের বয়সসীমা ৭০ বছর। সিটিংজাজদের বয়সমীমা ৮০ বছর হতে পারে। বিচারপতিদের বয়স বাড়ানোটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছিল না। অভিজ্ঞদের মাধ্যমে দেশ ও জাতি উপকৃত হয়। হাইকোর্টে ন্যাপরায়ণতা ও অভিজ্ঞতার বিকল্প নেই। আমি মনে করি সেটা জুডিসিয়ারীর জন্য শুভ পদক্ষেপ ছিল।

Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-05-14

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: