সংস্কার প্রশ্নে রাজনৈতিক দলে মতপার্থক্য থাকা অস্বাভাবিক নয়-ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন বলেছেন, দলের ভেতর থেকে সংস্কারের কথা আমাকে বলেছে, না অন্য কাউকে বলেছে সেটা বড় কথা নয়, আশার কথা যে, এখন রাজনৈতিক দলগুলো রাজনীতির সংস্কার করতে চাচ্ছে। এই সংস্কার প্রশ্নে রাজনৈতিক দলগুলোর ভেতরে মতপার্থক্য থাকা অস্বাভাবিক নয়। কেউ নেতৃত্বকে রেখে সংস্কার করতে চাইতে পারেন, কেউ নেতৃত্বের পরিবর্তনসহ সংস্কার করার কথা বলতে পারেন। সংস্কার প্রশ্নে এই মতপার্থক্য দলগুলোর অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। সংস্কার চাপিয়ে দেয়ার কোন অভিপ্রায় সরকারের নেই।

গতকাল রবিবার উপদেষ্টা তার দপ্তরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে একথা বলেন।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার টেলিভিশনে কি বলেছেন আমি তা শুনিনি। তবে ছাত্র রাজনীতির ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনে লিখিত সুপারিশ পাঠানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আইন উপদেষ্টা বলেন, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের রাজনীতি সচেতন হবার ব্যাপারে কোন আপত্তি নেই, কোন ছাত্র রাজনৈতিক দলের সদস্য হতে চাইলে সে হতে পারে। কিন্তু শিক্ষাঙ্গনে রাজনৈতিক দলের অঙ্গ সংগঠন হিসেবে দলীয় ছাত্র রাজনীতি থাকা সমীচীন নয়। কারণ এতে দলীয় রাজনীতির সংঘাতে শিক্ষার পরিবেশ ধ্বংস হয়। একই কারণে শিক্ষকদেরও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনৈতিক দলের অঙ্গসংগঠন করার সুযোগ থাকতে পারে না।

আইন উপদেষ্টা আরও বলেন, ব্যাংক, বীমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও কল-কারখানায় শ্রমিক-কর্মচারীদের দলীয় সংগঠন থাকলে ট্রেড ইউনিয়ন বলতে কিছু থাকে না। Source:দৈনিক ইত্তেফাক
Date:2007-04-30

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: